Sanjay Raut: ১০ ঘন্টার ম্যারাথন জিজ্ঞাসাবাদ, তদন্তে পূর্ণ সাহায্যের আশ্বাস রাউতের

60
Sanjay Raut: ১০ ঘন্টার ম্যারাথন জিজ্ঞাসাবাদ, তদন্তে পূর্ণ সাহায্যের আশ্বাস রাউতের

মহানগর ডেস্ক: শুক্রবার ইডির(Enforcement Directorate) আধিকারিকদের মুখোমুখি হয়েছেন সঞ্জয় রাউত (Sanjay Raut)। আর্থিক তছরুপের মামলায় এদিন প্রায় ১০ ঘণ্টা ধরে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। দক্ষিণ মুম্বইয়ের ব্যালার্ড এস্টেটে সকাল ১১:৩০ টা নাগাদ ইডির অফিসে ঢোকেন সেনা সংসদ। সেখান থেকে বেরিয়ে আসেন রাত সাড়ে ন’টার সময়। দফতর থেকে বেরিয়ে রাউত বলেন, তিনি তদন্তে সমস্ত রকম সাহায্য করবেন। একজন দায়িত্বপ্রাপ্ত নাগরিক হিসেবে দফতরে হাজির হওয়া কর্তব্যের মধ্যে পরে। তাঁর কথায়, ‘আমি এই নিয়ে ভীত নই। তদন্তে সব রকম সাহায্য করা আমাদের কাজ। ডাকা হয়েছিল, তাই এসেছিলাম। আগামী দিনে ডাকলে আবার আসব’।

এদিন এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের অফিসে তাঁর ঢোকার আগে এলাকায় প্রচুর পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছিল। কারণ সেখানে জমায়েত হয়েছিলেন প্রচুর শিবসেনা কর্মী। রাস্তার দু’ধারে দেওয়া হয়েছিল ব্যারিকেড। উল্লেখ্য গত ২৮ জুন তাঁকে দফতরে হাজির হওয়ার জন্য সমন পাঠায় তদন্তকারী সংস্থা। কিন্তু সেই সমনকে ‘রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র’ বলে মন্তব্য করেছিলেন সেনা সংসদ। মহারাষ্ট্রের তৎকালীন রাজনৈতিক সংকটের কারণে সেই সময় হাজিরা দেননি। তাঁর আইনজীবী সংস্থার কাছ থেকে অতিরিক্ত সময় চেয়ে নেন। এরপর ১ জুলাইয়ের আগে তাঁকে হাজির হওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়। শুক্রবার ইডির অফিসে ঢোকার আগে সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘সকলেরই জানা এটা পুরো রাজনৈতিক। তলব করা হয়েছে, হাজির হওয়াটা কর্তব্যের মধ্যে পরে’।

আরও পড়ুন, এক ঝলকেই মাত! রকেট্রি দ্য নাম্বি এফেক্টে কয়েক মিনিটের উপস্থিতিতেই খুশি শাহরুখ ফ্যানরা

মূলত ২০০৭ সালের জমি দুর্নীতি মামলায় তলব করা হয়েছে সেনা সাংসদকে। তাঁর বিরুদ্ধে বেআইনিভাবে আর্থিক লেনদেনের অভিযোগ উঠেছে। সূত্র অনুযায়ী, রাউতের আলিবাগের আটটি জমি, দাদারের ফ্ল্যাট সহ সম্পত্তির খোঁজ নিয়েছেন তদন্তকারী আধিকারিকরা। গত এপ্রিলেই তাঁর স্ত্রীর নামে থাকা ১১ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। এদিন জিজ্ঞাসাবাদের পর তিনি সব রকম সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন।