২০০ কোটির রাজকীয় বিয়েতে আবর্জনা জমেছে ১৫ হাজার কেজি, জনস্বার্থ মামলা দায়ের

433

মহানগর ওয়েবডেস্ক: দক্ষিণ আফ্রিকার প্রবাসী ব্যবসায়ীদের ছেলের বিয়ে বলে কথা! তাও আবার ভারতে। বিয়েতে যে রাজকীয় আয়োজন হবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। দেশ-বিদেশের প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী, শিল্পপতি থেকে শুরু করে রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, বলিউড অভিনেতা-অভিনেত্রী- সকলেই উপস্থিত ছিলেন অনুষ্ঠানে। এমনকি বিয়েবাড়িতে যোগচর্চার অনুষ্ঠানও রাখা হয়েছিল এবং সেটিতে উপস্থিত ছিলেন যোগগুরু রামদেব স্বয়ং। সবমিলিয়ে, এই রাজকীয় বিয়ের অনুষ্ঠানে খরচ হয়েছে প্রায় ২০০ কোটি টাকা। যদিও উত্তরাখণ্ডের আউলি শহরের গুপ্ত পরিবারের কাছে বিয়ের অনুষ্ঠানের এই খরচ কোনও ব্যাপার নয়। তবে অনুষ্ঠানের পর ওই এলাকায় পড়ে থাকা আবর্জনার স্তূপ সরাতে গুপ্ত পরিবারকে যে টাকা ব্যয় করতে হয়েছে তা বোধহয় তাঁরা কল্পনাও করেননি। কেবল বিয়ের অনুষ্ঠানের আবর্জনা সরাতে তাঁরা খরচ করেছেন ৫৪০০০ টাকা। যা আম্বানি পরিবারের বিয়ের অনুষ্ঠান-পরবর্তী আবর্জনা সরানোর খরচকেও পিছনে ফেলে দিয়েছে।

জানা গিয়েছে, দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যবসায়ী, প্রবাসী অজয় গুপ্ত আর অতুল গুপ্তর দুই ছেলের বিয়ের আসর বসেছিল উত্তরাখণ্ডেক আউলি শহরে। গত ১৮ থেকে ২২ জুন- পাঁচদিন ধরে চলেছিল বিয়ের অনুষ্ঠান। দেশ-বিদেশের ব্যবসায়ী, শিল্পপতি থেকে শুরু করে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব এবং ক্যাটরিনা কাইফ সহ বলিউডের অভিনেতা-অভিনেত্রীরাও আমন্ত্রিত ছিলেন এই বিয়েতে। তাঁদের থাকার জন্য শহরের প্রায় সমস্ত হোটেল, রিসর্ট গুপ্ত পরিবারের তরফে বুকিং ছিল। বিয়েবাড়ি সাজানোর জন্য বিভিন্ন উপকরণ তো ছিলই, অতিথিদের চমক দিতে সুইত্জারল্যান্ড থেকে দামি অর্কিড আর ফুল আনা হয়েছিল। খাওয়া-দাওয়ারও এলাহি আয়োজন ছিল। এই এলাহি আয়োজনের মধ্যে পাঁচদিন ধরে হাজার-হাজার অতিথি আপ্যায়নের পর ওই বিয়েবাড়ি চত্বরে জমা হয়ে আবর্জনার স্তূপ। যা দেখে রীতিমতো চিন্তায় পড়ে যায় স্থানীয় পুরসভা কর্তৃপক্ষ। পুরসভার প্রধান শৈলেন্দ্র মানোয়ার বলেন, গুপ্ত পরিবারের বিয়েবাড়ির চত্বর থেকে প্রায় ১৫,০০০ কেজি আবর্জনা সরানো হয়েছে। এই আবর্জনা পরিষ্কার করার জন্য অতিরিক্ত ২০ জন সাফাইকর্মী নিয়োগ করতে হয়েছে। বড়ো গাড়িরও ব্যবস্থা করতে হয়েছে। এর পুরো খরচ গুপ্ত পরিবার দিতে সমর্থ হয়েছিল। সবমিলিয়ে, আবর্জনা পরিস্কারের জন্য পুরসভা কর্তৃপক্ষের কাছে ৫৪ হাজার টাকা দিতে হয়েছে গুপ্ত পরিবারকে।

অন্যদিকে, গুপ্ত পরিবারের এই রাজকীয় বিয়ের জন্য যে বিপুল পরিমাণ আবর্জনা জমা হয়েছে, তাতে পরিবেশ দূষিত ও ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে বলে রাজ্যের হাইকোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলাও দায়ের হয়েছে। আগামী ৭ জুলাইয়ের মধ্যে এ বিষয়ে রাজ্যের দূষণ নিয়ন্ত্রণ বোর্ডকে বিস্তারিত রিপোট জমা দিতে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। ৮ জুলাই এই মামলার শুনানি হবে।