দিল্লির অগ্নিকাণ্ডে নিখোঁজ ২৯ জন, মৃতদের পরিবারকে আর্থিক সাহায্যের ঘোষণা কেজরিওয়ালের

59

মহানগর ডেস্ক: গতকাল রাজধানীতে একটি ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এখনও পর্যন্ত প্রাণ হারিয়েছেন ২৭ জন মানুষ। গুরুতর আহত ১২ জন। শুক্রবার দিল্লির মুন্ডকা মেট্রো স্টেশনের কাছে একটি বহুতল মুহূর্তের মধ্যেই পুড়ে ছাই হয়ে যায়। ইতিমধ্যেই অগ্নিকাণ্ডের কারণ খুঁজতে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল। পাশাপাশি মৃতদের পরিবারকে ১০ লক্ষ টাকা আর্থিক সাহায্যের ঘোষণা করেছেন তিনি। আহতদের দেওয়া হবে ৫০ হাজার টাকা।

আজ, সকালে মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়াল ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসেন। যার পর তিনি আর্থিক সাহায্যের ঘোষণা করেছেন। এখনও পর্যন্ত এই ঘটনায় নিখোঁজ ২৯ জন। কেন এই ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ঘটল? তার জন্য তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। দিল্লির দমকল দফতরের মুখ্য অফিসার অতুল গর্গ জানিয়েছেন, বিদ্যুৎ সরবরাহের লাইনে বিস্ফোরণ ঘটার কারণে এই ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।

আশঙ্কা করা হচ্ছে, বাড়তে পারে মৃতের সংখ্যা। কেউ বিল্ডিংয়ে আটকে রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এনডিআরএফ-এর তরফে জানানো হয়েছে, দোতালায় কিছু দেহাংশের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। খোঁজ চলছে বাকিদের।

গতকাল বিকেল পৌনে পাঁচটা নাগাদ পশ্চিম দিল্লির মেট্রো স্টেশনের কাছে চারতলা বিল্ডিংয়ে আগুন ধরে যায়। ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় পুলিশ ও দমকল বাহিনী। ৭ ঘণ্টারও বেশি সময় পর নিয়ন্ত্রণে আনা গিয়েছে আগুন। কিন্তু ততক্ষণে প্রাণ গিয়েছে বহু মানুষের। সূত্র অনুযায়ী, সেই সময়ে ওই বিল্ডিংয়ে কাজের জন্য ১২০ জনের কাছাকাছি মানুষ উপস্থিত ছিলেন। দোতালায় ছিল একটি সিসিটিভি ক্যামেরা এবং রাউটার সারাইয়ের কোম্পানি। তৃতীয় তলায় মোটিভেশনাল স্পিচের একটি অনুষ্ঠান আয়োজিত হচ্ছিল। সেখানে অনেকেই অংশ নিয়েছিলেন। ফলে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় প্রাণহানি বেশি হয়েছে। এদিনের এই ঘটনা সকলকে পার্ক স্ট্রিটের স্টিফেন কোর্টের অগ্নিকাণ্ডের কথা মনে করিয়ে দিয়েছে।