গোয়ায় একটি হাসপাতালে তিন দিনে ৪১ করোনা রোগীর মৃত্যু, চরম অব্যবস্থার ছবি প্রকাশ্যে

7

মহানগর ডেস্ক:   করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে অবস্থা খারাপ গোয়ার। গোয়ার একটি হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে তিন দিনে ৪১ জন রোগীর মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। গোয়া মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের চরম অব্যবস্থার ছবি উঠে এসেছে। মেঝেতে এমনভাবে রোগীরা শুয়ে রয়েছেন, যেখানে পা ফেলাই প্রায় যাচ্ছে না। স্টোর রুমের মেঝেতেও রাখা হয়েছে রোগীদের।

গোয়ার প্রথম সারি হাসপাতাল হিসেবে পরিচিত গোয়া মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল। কিন্তু সেখানেই যা অব্যবস্থার ছবি ফুটে উঠেছে, তাতে একাধিক প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে একসঙ্গে ১৫ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়। এর ঠিক দুই দিন আগে ওই হাসপাতালে ২৬ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। একটি হাসপাতাল থেকে এত করোনা রোগীর একসঙ্গে মৃত্যুর খবর প্রকাশিত হতেই নড়েচড়ে বসেছে সংবাদমাধ্যম।

গোয়া মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের ছবিতে দেখা গিয়েছে, হাসপাতালে করিডরে শুয়ে রয়েছে করোনা রোগীরা। কোথাও করোনা রোগীরা পিচবোর্ড পেতে শুয়ে আছেন তো কোথাও করোনা রোগীরা মেঝেতেই শুয়ে রয়েছে। ওই করোনা রোগীদের কাউকে কাউকে অক্সিজেন দিতে হচ্ছে। দেওয়ালে হেলান দিয়ে রাখা হয়েছে অক্সিজেন সিলিন্ডার। তবে এই বিষয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কোনও মন্তব্য করতে অস্বীকার করেছে।

তবে গোয়ার করোনা পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে। গোয়ায় করোনা সংক্রমণের হার ৪১ শতাংশের বেশি। অর্থাৎ করোনা পরীক্ষায় প্রতি দুই জনে একজন করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গোয়ায় লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।