পুরুষাঙ্গ হীন অবস্থায় কেটেছে ছ ছ’টা বছর!অবশেষে ফিরে পেলেন ‘আসল পুরুষ’য়ের জীবন

89

মহানগর ডেস্ক : মাত্র ৪৭ বছর বয়সেই জীবনটা যেন হঠাৎ থমকে গিয়েছিল ইংল্যান্ড বাসী ম্যাককালাম ম্যাকডোনাল্ডের। যাঁকে কাটাতে হয়েছে যন্ত্রণার ছ ছ’টা বছর। এক সামান্য ভুলে বাদ পড়েছিল তাঁর পুরুষাঙ্গ। তাঁর যন্ত্রণার সেই কাহিনী জানিয়েছিলেন নিউইয়র্ক পোস্টে।

 

নিউইয়র্ক পোস্টের কথা অনুযায়ী, ২০১০ সালে ম্যাকডোনাল্ডের চিকিৎসা চলাকালীন আচমকা তাঁর পুরুষাঙ্গ মাটিতে খসে পড়ে যায়। সম্ভবত কিছু ইনফেকশনে ভুগছিলেন তিনি। তড়িঘড়ি চিকিতসকেরা তার বাঁ হাতের চামড়া কেটে এক নকল পুরুষাঙ্গ প্রতিস্থাপন করতে চেয়েছিলেন কিন্তু সম্ভব নয়। এই বুঝে মাঝপথে থামিয়ে দিয়েছিলেন অপারেশন। কারন ততক্ষনে শরীরে অক্সিজেন প্রবাহ কমতে শুরু করেছে। বিপদ বুঝে সেই কাটা পুরুষাাঙ্গ পুনরায় তাঁর বাঁ হাতে লাগিয়ে দিয়েছিলেন।

 

আপাতদৃষ্টিতে পুরো ঘটনা যতটা স্বাভাবিক মনে হচ্ছে তার থেকেও ভয়াবহ জীবন কাটাতে হয়েছে ম্যাকডোনাল্ডকে। অপারেশন ব্যর্থ হয়েছে তাঁর। যে ব্যর্থতার বোঝা থেকে বয়ে বেড়াতে হয়েছে ছয় বছর। কাছের বন্ধুরা হাসি ঠাট্টা করেছে তাঁর দুর্দশা দেখে। মজা উড়িয়েছেন রীতিমতো। কিন্তু ভেঙে পড়েননি ম্যাকডোনাল্ড। বুঝে নিয়েছিলেন এটাই তো তাঁর জীবন হতে চলেছে আগামী কয়েক বছর। একটা ভুল তাঁর পুরো জীবনটাই যেন এলোমেলো করে দিল। তবে হাল ছাড়েননি তিনি। দ্বিতীয় বার উঠেছিলেন অপারেশনের টেবিলে। ছয় বছরের যন্ত্রণা, কষ্ট,লাঞ্ছনাকে শক্তি বানিয়েছিলেন তিনি।

 

সালটা ২০২১, দ্বিতীয়বারের জন্য অপারেশন থিয়েটারে ঢুকলেন তিনি। ন’ঘন্টা ধরে চলল দাঁতে দাঁত চেপে তীব্র লড়াই। অবশেষে সফলতা এল। ফিরে পেলেন তাঁর পুরুষাঙ্গ। আজকে সমাজের বুকে পুনরায় ‘আসল পুরুষ’ হয়ে উঠলেন তিনি। তবে সেই সংবাদপত্রকে তিনি জানিয়েছেন, তাঁর কৃত্রিম পুরুষাঙ্গ আসল পুরুষাঙ্গের থেকেও ভালো। সুস্থ জীবনে ফিরেছেন ম্যাককালাম ম্যাকডোনাল্ড। আজ এ সমাজের চোখে পুনরায় তিনি হয়ে উঠলেন ‘সফল পুরুষ’।