Pokhran: জঙ্গি সন্দেহে এলোপাথাড়ি মার, যুবকের মৃত্যু ঘিরে উত্তাল পোখরান

56

মহানগর ডেস্ক: যুবককে জঙ্গি সন্দেহে এলোপাথাড়ি মার। আর সেই মারেই মৃত্যু হয় যুবকের, এমনই অভিযোগ নিয়ে পোখরান এসডিএম অফিস চত্ত্বর ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখতে শুরু করেন পরিবারের লোকেরা। তাতেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি।

সূত্রের খবর, রাজস্থানের পোখরানের ফায়ারিং রেঞ্জ এলাকায় বাসিন্দা তথা মৃত ওই যুবক তার বন্ধুকে নিয়ে গবাদি পশুর সন্ধানে গিয়েছিলেন। সেটা সেনাকর্মীদের চোখে পড়ে, কিন্তু তাদের নিষেধ সত্বেও ভয়ে দুই যুবক মোটর বাইক ফেলে পালাতে চেষ্টা করলে সেনা জওয়ানদের হাতে ধরা পড়ে যায়। জঙ্গী সন্দেহে সেনারা বেধড়ক মার শুরু করে বলে অভিযোগ। তাতেই গুরুতর আহত হন সালমান নামের বছর ২৪ এর ওই যুবক। সেই অবস্থায় তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে। অন্যদিকে সেনাদের বক্তব্য নিষিদ্ধ এলাকায় ওই দুই যুবককে ঘোরাফেরা করতে দেখেই সন্দেহ হয় জওয়ানদের।

অন্যদিকে, এই ঘটনার পর থেকেই উত্তাল হয়ে ওঠে এলাকা। মৃত যুবকের পরিবারের লোক ওই ৬ সেনাকর্মীদের বিরুদ্ধে একটি এফআইআর দায়ের করে। মৃত আত্মীয়ের দেহ নিয়ে পরিবারের সদস্যরা পোখরান এসডিএম অফিসের সামনে দীর্ঘক্ষণ ধর্নায় বসেন। আর ৫০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ সহ সেই দোষী সেনাকর্মীদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবিতে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে।

অন্যদিকে, এই ঘটনায় প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল অমিতাভ শর্মার তরফে জানানো হয়েছে, পোখরান ফিল্ড ফায়ারিং রেঞ্জ ভারত-পাকিস্তান সীমান্তের কাছে অবস্থিত হওয়ায় সশস্ত্র বাহিনী সর্বদাই সেখানে টহল দেন। ১ লা আগস্ট সকাল ১১:৩০ মিনিট নাগাদ সেনাদের চোখে স্পর্শকাতর প্রতিরক্ষা এলাকার প্রায় পাঁচ কিলোমিটার ভিতরে ওই দুজন যুবককে দেখে। তারপর পালানোর চেষ্টা করতেই তার থেকেই এই ঘটনা। যদিও সেনাবাহিনী এবং পুলিশ উভয়ই যৌথভাবে মামলাটি তদন্ত করছে।