পুলিশের সাহায্যে মিলল সুরাহা, দীর্ঘ আলোচনার পর শ্রমিকেরা পাবেন ২ মাসের বকেয়া বেতন

11
West Bardhaman
পুজোর আগে না হলেও, পুজোর পরে বকেয়া বেতন পাচ্ছেন শ্রমিকেরা: নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব প্রতিনিধি, পশ্চিম বর্ধমান: কাজ করেও বেতন না মেলায় শ্রমিকদের মাথায় চিন্তার ভাঁজ। অভিযোগ উঠেছে আসানসোলের কুলটি থানার অন্তর্গত কদভিটা এলাকার এক বেসরকারকারি ইম্পেক্সফেরটেক নামে কারখানার পাওয়ারপ্লান্টে ঠিকাদার কোম্পানি এনমাসইন্ডিয়া নামে ওই কোম্পানির আন্ডারে ঠিকা শ্রমিকদের কাজ করতেন ১৩০ জন। এরপরই শ্রমিকদের দুমাসের বকেয়া বেতন না দিয়ে ওই ঠিকাদার সংস্থাটি পালিয়ে যায়।

এরপর শ্রমিকরা জানতে পারে যে ওই ঠিকাদার সংস্থা তাঁদের বকেয়া বেতন না দিয়ে সংস্থা ওই কারখানা ছেড়ে পালিয়ে যায়। তার পরে শ্রমিকরা বিষয় টি জানতে পেরে চৌরাঙ্গিফাঁড়ির পুলিশকে ঘটনাটি জানায়। শুক্রবার অর্থাৎ আজ চৌরাঙ্গিফাঁড়ির পুলিশ ওই পালিয়ে যাওয়া ঠিকা সংস্থার সাথে যোগাযোগ করে। এবং ওই ঠিকা সংস্থা ও শ্রমিকরা তাঁদের বকেয়া বেতন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয় বলে খবর সূত্রে জানা যায়। তবে পুজোর সময় বাঁকেয়া বেতন না মেলাতে সমস্যায় রয়েছে শ্রমিক পরিবার।

শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী জানা গিয়েছে, দীর্ঘ ক্ষণ শ্রমিক ও ঠিকা সংস্থার মধ্যে আলোচনা হয়। অবশেষে রাজি হয় শ্রমিকদের বেতন দেওয়া নিয়ে। শ্রমিকদের বাঁকেয়া বেতন দুই ভাগে করে দেওয়া হবে বলে এই আলোচনাতে উঠে আসে। এই আশ্বাস মেলায় শ্রমিকরা বকেয়া বেতন পাওয়ার আশ্বাসে খুশি তাঁরা।