একটা শর্তেই দেওয়া যাবে মদ, সিদ্ধান্ত এক্সাইজ বিভাগের

26
Liquor
করোনা ভ্যাকসিনের ডাবল ডোজের শংসাপত্র থাকলেই একমাত্র পাওয়া যাবে মদ।

মহানগর ডেস্ক: বর্তমানে গোটা দেশে করোনা সংক্রমনের হার অনেকটাই কম। দৈনিক সংক্রমনের গ্রাফ অনেকটাই নিম্নমুখী। একই সঙ্গে দেশের প্রায় সব রাজ্যে করোনা নিয়ে সর্তকতা রয়েছে বেশ কড়াকরি। কিন্তু এরই মধ্যে মধ্যপ্রদেশ সরকার গোটা রাজ্য থেকে করোনার বিধি-নিষেধ পুরোপুরি ভাবে তুলে দিয়েছেন। কারণ বর্তমানে রাজ্যের মহামারীর পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে এসেছে বলে জানানো হয়েছে। এমনকি বুধবার রাত থেকে নাইট কারফিউও তুলে দেওয়া হয়েছে।

মধ্যপ্রদেশে বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে থিয়েটারে আগের মতোই উপস্থিত থাকতে পারবেন সাধারন মানুষ। কেবলমাত্র কোনও অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার আগে প্রয়োজন করোনা নেগেটিভের শংসাপত্র। সেই একই নির্দেশ জারি করা হয়েছে মধ্যপ্রদেশে খাণ্ডোয়া জেলায়। শুধু একটি নয়, এই জেলায় আরও একাধিক নির্দেশ জারি করা হয়েছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে। সর্বভারতীয় এক সংবাদ সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে, মধ্যপ্রদেশের খাণ্ডোয়া জেলায় আবগারি আধিকারিকদের পক্ষ থেকে খুচরা ব্যবসায়ীদের জানানো হয়েছে, ব্যবসায়ীরা শুধুমাত্র তাঁদেরই মদ বিক্রি করতে পারবেন, যাঁদের কাছে করোনার দুটি ডোজের শংসাপত্র রয়েছে।

এমনকি ক্রেতাদের ক্ষেত্রেও একই নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। তাঁরাই একমাত্র মদ কিনতে পারবেন, যাঁরা করোনার দুটি ডোজ নিয়েছেন। যদি কোনও ক্রেতা মদ কিনতে এসে করোনার দুটি ডোজের শংসাপত্র না দেখাতে পারে, তাহলে তাঁকে মদ বিক্রি করা যাবে না। সেই নির্দেশে একটি বিজ্ঞপ্তিও জারি করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, শুধুমাত্র মদের দোকানের ক্ষেত্রে নয়, মধ্যপ্রদেশে সমস্ত রেশন কার্ডধারীদের করোনা টিকার দুটি ডোজ নেওয়া বাধ্যতামূলক এবং গ্রাহক এই প্রটোকলগুলি অনুসরণ করছে কিনা তা পরীক্ষা করাও বিক্রেতাদের দায়িত্ব বলে জানানো হয়েছে। যদি বিক্রেতা জানতে পারেন যে গ্রাহক তাঁদের প্রথম বা দ্বিতীয় পাননি, তা হলে অবশ্যই তাঁকে নিকটস্থ হাসপাতালে নিয়ে যেতে হবে। এবং করোনা টিকা নেওয়ার অনুরোধ করতে হবে।