ফের এক বিজেপি কর্মীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, সিবিআই দাবি পদ্ম নেতৃত্বের

7
kolkata news

নিজস্ব প্রতিনিধি : আরও এক বিজেপি কর্মীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারে রহস্য। পূর্ব বর্ধমানের কালনায় বাড়ির অদূরের একটি বাগান থেকে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয় বছর পঁয়তাল্লিশের অখিল প্রামাণিকের। পরিবারের অভিযোগ, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই অখিলকে খুন করে দেহ ঝুলিয়ে দিয়েছে। অভিযোগ অস্বীকার ঘাসফুল শিবিরের।  

রবিবারের পর সোমবার। চাকদহের পর এবার কালনা। রবিবার চাকদহে এক বিজেপি কর্মীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। তার জেরে তপ্ত হয়ে ওঠে এলাকা। আর সোমবার কালনার কল্যাণপুরে বাড়ির অদূরের একটি গাছ থেকে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয় বিজেপি কর্মী অখিলের। মৃত বিজেপি কর্মীর পরিবারের দাবি, রবিবার গভীর রাতে কয়েকজনের আচমকাই ঘর থেকে চলে যান অখিল। তার পর আর ফেরেননি। এদিন সকালে বাড়ির অদূরের একটি বাগান থেকে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয় তাঁর। সূত্রের খবর, মৃতদেহের পা মাটিতে লেগেছিল। কয়েক ফোঁটা রক্তও পড়েছিল। যা দেখে পরিবারের অনুমান, খুন করে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে অখিলকে। অখিলের ভাই দেবুর অভিযোগ, মাস কয়েক ধরে আমার ভাইকে হুমকি দিচ্ছিল তৃণমূলের লোকজন। ওরাই আমার ভাইকে খুন করেছে। ঘটনার জেরে ভাঙচুর করা হয়েছে তৃণমূলের পার্টি অফিস।  

রহস্য উদ্ঘাটনে সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়েছে বিজেপি। পদ্ম-নেতা  সুশান্ত পাণ্ডে বলেন, আমরা সিবিআই তদন্তের দাবি জানাচ্ছি। আমাদের দলের কর্মী অখিলকে খুন করে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। দোষীদের কঠোর শাস্তি চাই। বিজেপির অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তৃণমূল নেতৃত্ব। তাঁদের দাবি, অখিল বিজেপির কেউ নন। কালনা ২ ব্লকের তৃণমূল সভাপতি প্রণব রায় বলেন, ওই ব্যক্তি দীর্ঘদিন ধরে শারীরিক অসুস্থতায় ভুগছিলেন। সেই যন্ত্রণায় আত্মঘাতী হয়েছেন। দেহ উদ্ধার করে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।