সোনার ইতিহাস লিখতে পারলেন না অংশু, সন্তুষ্ট থাকলেন রুপোতেই

33
ভারতের মহিলা কুস্তিগীর অংশু মালিক।

মহানগর ডেস্ক: প্রথম ভারতীয় মহিলা হিসেবে বিশ্ব কুস্তি চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে পৌঁছে আগেই ইতিহাস গড়ে ফেলেছিলেন অংশু মালিক। তাই সবার মনে প্রশ্ন ছিল একটাই, আদৌ কি সোনা জিততে পারবেন এই মহিলা কুস্তিগীর! গোটা দেশের প্রত্যাশার চাপ ছিল ১৯ বছর বয়সী এই কুস্তিগিরের ওপর।
কিন্তু ফাইনালের চাপ সামলাতে পারলেন না অংশু। ৫৭ কেজি বিভাগে হার মানলেন আমেরিকার কুস্তিগির হেলেন লাউজি মারোউলিসের কাছে। ২০১৬ সালে রিও অলিম্পিক্সে সোনা জিতেছিলেন হেলেন। প্রাক্তন অলিম্পিক চ্যাম্পিয়নের কাছে হেরে রুপোতেই সন্তুষ্ট থাকলেন অংশু। তিনি হেরে যাওয়ায় বিশ্ব কুস্তি চ্যাম্পিয়নশিপের মঞ্চে মহিলাদের থেকে সোনার অপেক্ষা বাড়ল ভারতের। সুশীল কুমার একমাত্র ভারতীয় হিসেবে সোনা জিতেছেন বিশ্ব কুস্তি চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে। কিন্তু কোনও ভারতীয় মহিলা কুস্তিগীর এটা করে দেখাতে পারেননি।

ফাইনালে সোনা জিততে না পারলেও অংশুর সাফল্যকে খাটো করা যাবে না কোনও ভাবেই। কোয়ার্টার ফাইনালে গোড়ালিতে চোট পেয়েছিলেন তিনি। চোট নিয়েই বাকি ম্যাচগুলি খেলে যান। ফাইনালে এক সময়ে অংশু এগিয়েও ছিলেন ১-০ ব্যবধানে। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে লড়াইয়ের চিত্রনাট্য বদলে যায়। অংশুকে ম্যাটে ফেলে দিয়ে ২-১-এ এগিয়ে যান হেলেন। এরপর অবশ্য শেষ পর্যন্ত প্রাধান্য রেখে যান আমেরিকান কুস্তিগীর।

লড়াই শেষে যন্ত্রণায় কাতরাতে থাকেন অংশু মালিক। তবে তিনি কষ্ট পেলেও গোটা দেশ তাঁর সাফল্যে গর্বিত। ইতিমধ্যেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ অনেকেই শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তাঁকে। পাশাপাশি দেশের ক্রীড়ামহল অংশুর এই লড়াইকে কুর্ণিশ করেছে।