Arjun Singh: একই ছবিতে মমতা-অভিষেক ও অর্জুন, তবে কী ঘরওয়াপসির সম্ভবনা বিজেপি নেতার?

81
Arjun Singh: একই ছবিতে মমতা-অভিষেক ও অর্জুন, তবে কী ঘরওয়াপসির সম্ভবনা বিজেপি নেতার?

মহানগর ডেস্ক: পাট শিল্প নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই বেসুরো শোনাচ্ছে ব্যারাকপুরের বিজেপি (BJP) সাংসদ অর্জুন সিংকে ( Arjun Singh)। দ্রুতই বৈঠকে বসতে কেন্দ্রীয় বস্ত্রশিল্প মন্ত্রীকে চিঠি লিখে সময়সীমাও নির্দিষ্ট করে দিয়েছিলেন সাংসদ। সেই অবস্থায় সাংসদকে তড়িঘড়ি দিল্লিতে ডেকে পাঠানো হয়। কিন্তু তাতেও ভেজেনি চিরে। কোনরকম লাভ হয়নি চটকলে শ্রমিকদের। এমন পরিস্থিতিতে প্রতিদিনই দলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক মন্তব্য করছেন অর্জুন সিং। এবার আচমকাই বাংলার মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) এবং সর্বভারতীয় তৃণমূল এর সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ( Abhishek Banerjee) সঙ্গে একই পোস্টারে দেখা গেল অর্জুন সিংকে! যা নিয়ে রীতিমতো হইচই শুরু হয়ে গিয়েছে।

সম্প্রতি বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন সাংসদ অর্জুন সিং। সেখানেই নাড্ডাকে জানিয়েছিলেন তিনি নিজের অভাব অভিযোগ। জানিয়েছিলেন, বঙ্গ বিজেপি দলের অসঙ্গতির কথা দলের নড়বড়ে ভাবের কথা। সঙ্গে জানিয়েছিলেন পাট শিল্প এবং জুটমিলের কর্মচারীদের সমস্যার কথাও। এরপরই তিনি কলকাতায় ফিরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে জানান, ‘আজ এহি তাক থা, কাল কি বাত কাল দেখা যায়গা। আগামী ১৫-১৬ দিনের মধ্যে স্থির হয়ে যাবে আমি কোথায় থাকব।’

আরও পড়ুন: জাল নোট কান্ডের তদন্তে ধৃতদের সঙ্গে নিয়ে তল্লাশি

অর্জুন সিংয়ের এহেন মন্তব্যের ৭২ ঘন্টার মধ্যেই ব্যারাকপুরের দেখা গেল, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে একই ফ্রেমে অর্জুন সিংয়ের ছবি। যেখানে অর্জুন সিংকে তৃণমূল কংগ্রেসের দলে অভ্যর্থনা জানিয়ে এই পোস্টার প্রকাশ প্রকাশ করা হয়েছে। এখন প্রশ্ন উঠছে, খুব শীঘ্রই কী সমস্ত জল্পনাকে সত্যি করে তৃণমূলে ফিরতে চলেছেন বিজেপি সাংসদ? যদিও সেই উত্তরের সন্ধানের জন্য অপেক্ষা করতে হবে খানিকটা সময়ের।

প্রসঙ্গত, পাটশিল্পের অবস্থা শোচনীয়। যার জেরে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে রাজ্যের বিভিন্ন পাটকলগুলো। কারণ ওদিকে কেন্দ্রের তরফ থেকে বেঁধে দেওয়া হয়েছে পাটের দাম। যার ফলে লাভ পাচ্ছেন না মালিকরা। ফলে বাধ্য হচ্ছেন পাটকলগুলি বন্ধ করে দিতে। এমন পরিস্থিতিতে পাঠ শ্রমিকদের জন্য লড়াইয়ে নেমেছেন ব্যারাকপুরে বিজেপি সাংসদ।