চাই ভরপুর ‘জোশ’, সঙ্গে ধৈর্য আবশ্যক, লাদাখে সেনাবাহিনীকে পেপটক সেনাপ্রধানের

5
defence news national

মহানগর ওয়েবডেস্ক: গোটা দেশ এখন চেয়ে রয়েছে লাদাখের দিকে। সেখানে কী হচ্ছে না হচ্ছে তাই নিয়ে প্রতিদিন রক্তচাপ বাড়ছে কূটনৈতিক মহলের। এরই মাঝে দু’দিনের লাদাখ সফরে গিয়েছিলেন ভারতীয় সেনাপ্রধান মনোজ মুকুল নারাভানে। সেখানে পৌঁছে সেনাবাহিনীর উদ্দেশে পেপটক দেন তিনি। সেনারপ্রধানকে বলতে শোনা যায়, গোটা দেশ এই মুহূর্তে সেনাবাহিনীর দিকে তাকিয়ে রয়েছে। এবং বর্তমান পরিস্থিতিতে তাদের ‘জোশ’ ও ধৈর্য দু’টোই দেখাত হবে।

গত ২ ও ৩ সেপ্টেম্বর লাদাখ সেক্টরের সফরে গিয়েছিলেন সেনাপ্রধান নারাভানে। সেখানে পৌঁছে সীমান্ত পরিস্থিতি খতিয়ে দেখার পাশাপাশি সেনা ছাউনিতে গিয়েও প্রস্তুতি খতিয়ে দেখেন। সীমান্তে বিগত তিনমাসের বেশি সময় ধরে চলা উত্তেজনার মাঝে প্রধানমন্ত্রী ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর সঙ্গেও আগে লাদাখ সফরে গিয়েছিলেন সেনাপ্রধান। এবার সফরে দিয়ে সেনাবাহিনীর মনোবল বাড়ানোর উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘দেশের নজর আমাদের উপর রয়েছে। জোশের পাশাপাশি আপনাদের ধৈর্য ও আত্ম-নিয়ন্ত্রণ রাখতে হবে।’

লাদাখ পৌঁছে সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে নারাভানে জানিয়েছিলেন, ‘লেহ পৌঁছনোর পর আমি সমগ্র পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেছি। সৈন্যদলের সঙ্গে কথা বলে আমি সরাসরি বাস্তব পরিস্থিতি জানতে চেয়েছি। ওরা  ভীষণভাবে অনুপ্রাণিত এবং যে কোনও পরিস্থিতির সঙ্গে মোকাবিলা করতে সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত। আমি আবারও বলবো, আমাদের সেনা গোটা বিশ্বের মধ্যে অন্যতম সেরা। শুধু সেনাবাহিনীকে নয়, তারা গোটা দেশকে গর্বিত করবে।’

প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখার পরিস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন করা হলে সেনাপ্রধান জানান, ‘প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় সীমান্তের পরিস্থিতি একটু হলেও উত্তেজনাপূর্ণ। আমাদের ব্যক্তিগত নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে কিছু সেনা সেখানে মোতায়েন করা হয়েছে। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবরই এই সেনা মোতায়েন করা হয়েছে।’ তিনি আরো বলেন, ‘আমরা সর্বদাই কূটনৈতিকভাবে এবং সামরিকভাবে চীনের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি। কথাবার্তা চলছে। আমরা নিশ্চিত আলোচনার মাধ্যমেই সমাধান সূত্র বেরিয়ে আসবে। আমাদের সর্বভৌমত্বে যাতে কোনও আঁচড় না আসে তা আমরা নিশ্চিত করবো।’