আশাবাদী মমতার দুই ভাই, কালীঘাটের বাড়িতে গেলেন অভিষেক

50

মহানগর ডেস্ক: এগিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এখনও পর্যন্ত ভবানীপুরে যা ট্রেন্ড তাতে ঘরের আসনে তাঁর জয় শুধু সময়ের অপেক্ষা। ইতিমধ্যে ভবানীপুরের আকাশে উড়েছে সবুজ আবির। গলিতে গলিতে উৎসবের মেজাজ। অনেকটাই পিছিয়ে বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়াল। নেত্রীকে শুভেচ্ছা জানাতে ইতিমধ্যে কালিঘাটের বাড়িতে পৌঁছেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

মমতার জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী ঘাসফুল শিবির। ৫০ থেকে ৭০ হাজার ভোটের ব্যবধানে তিনি জয়লাভ করতে পারেন বলে মনে করছেন ফিরহাদ হাকিম। আশাবাদী মমতার দুই ভাই কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায় ও স্বপন বন্দ্যোপাধ্যায়।

সূত্রের খবর, ভবানীপুরে শেষ হয়েছে নবম রাউণ্ডের গণনা। ইতিমধ্যে ৩০ হাজারের বেশি ভোটে এগিয়ে গিয়েছেন মমতা। ২০২১-এর বিধানসভা ভোটে তৃণমূল প্রার্থী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় বিজেপি প্রার্থী রুদ্রনীল ঘোষকে হারিয়েছিলেন ২৮ হাজার ৭১৯ ভোটে। সকালের ট্রেন্ড বজায় থাকলে মমতা এর থেকেও বড় ব্যবধানে।

সীমানা পুনর্বিন্যাসের পর ২০১১ সালে ভবানীপুরে ফের নির্বাচন করানো হয়েছিল। তখন সেখানেও অবসান হয়েছিল বাম জমানার। জিতেছিলেন তৃণমূলের সুব্রত বক্সী। সে বছর ৪৯ হাজার ৯৩৬ ভোটে ভোটে জিতেছিলেন সুব্রত। এর কিছু মাস পরেই ভবানীপুরে হয়েছিল উপনির্বাচনে। দাঁড়িয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জয়ী হয়েছিলেন ৫৪ হাজার ২১৩ ভোটে। ২০১৬ সালে ভবানীপুর থেকে জয় পেয়েছিলেন ২৫ হাজারের কিছু বেশি ভোটে। এবার ২০২১-এর উপনির্বাচনে মমতা বছর দশ আগে নিজের গড়া রেকর্ডকে ভাঙতে পারেন কি না সে দিকে তাকিয়ে রাজনৈতিকমহল থেকে আমজনতা।