Bad Dream : স্বপ্ন যখন দুঃস্বপ্ন, জানেন কি ঘুমের মধ্যেই ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা কেন হয়?

44
Bad Dream : স্বপ্ন যখন দুঃস্বপ্ন, জানেন কি ঘুমের মধ্যেই ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা কেন হয়?

মহানগর ডেস্ক : স্বপ্ন দেখতে কার না ভালো লাগে। স্বপ্নই তো এমন একটা জায়গা যেখানে না পারা ইচ্ছে গুলো সব সফল করা যায়। কেউ রাতে কেউ দিনে স্বপ্ন দেখেন। কিন্তু এই স্বপ্ন যখন ভালোর বদলে ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার কারন হয়। তখন কি আর সেটা স্বপ্ন থাকে? স্বপ্ন তখন দুঃস্বপ্নে(Bad Dream) পরিণত হয়। অমনি তড়িঘড়ি ঘুম থেকে উঠে পড়েন। আর ঠিক তার পরেই বোঝেন বাস্তবে রয়েছেন আপনি। আর যেটা আপনি দেখেছেন সেটা দুঃস্বপ্ন।

আরো পড়ুন,‘ভালো ছবির গুরুত্ব সব সময় রয়েছে’… উত্তর-দক্ষিণ সিনেমার দ্বন্দ্বে এবার মুখ খুললেন আলিয়া

কিন্তু কেন এমনটা হয়… সেই উত্তর আমাদের অনেকেরই অজানা। বিশেষজ্ঞদের মতে সারাদিনের ক্লান্তি চিন্তা এই সবকিছুর প্রভাব ফেলে আমাদের ওপর। এবং এই প্রভাব পড়ে ঘুমের উপরেও। আর ঠিক তখনই আমরা দুঃস্বপ্ন দেখি। মোকাবিলা করা মুখের কথা নয়। ভালো স্বপ্ন যেমন আমাদের মনে গেঁথে যায় তেমন দুঃস্বপ্নও তাই। এবং তা কাটিয়ে উঠতে সময় লাগে আরো বেশ কিছুটা সময়।

সম্প্রতি তুলানে ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স ইঞ্জিনিয়ারিং ও টুফস ইউনিভার্সিটি অফ মেডিসিনের একদল গবেষক এর উত্তর খুঁজতে একটি গবেষণা করেন। সেখানে উঠে এসেছে এক অন্যরকম তথ্য। গবেষকরা বলছেন স্ট্রেস নিউরোট্রান্সমিটার নরপাইনফ্রাইন যা নরড্রেনালাইন নামেও পরিচিত। এই স্নায়ুগুলিকে উদ্দীপিত করে জাগিয়ে ভয়ের স্মৃতি তৈরি করে। এবং মস্তিষ্কে এই ভয়ের বিস্ফোরণ ঘটায়। যখন আমরা ঘুমাই তখন আমাদের মস্তিষ্ক শান্ত থাকে। আর ঠিক সেই সময় এই বিস্ফোরণ আমাদের শিহরিত করে। আমরা জেগে উঠি। কিন্তু এই স্মৃতিগুলো আমাদের স্নায়ুগুলোকে উদ্দীপ্ত করে। যার ফলে দুঃস্বপ্ন স্থায়ী হয় বেশ কিছুদিন।

ধীরে ধীরে এগুলি কাটিয়ে ওঠা যায়। তার জন্য শুতে যাওয়ার আগে ভালো বই পড়া, ঘুমাতে যাবার আধঘন্টা আগে মোবাইল ফোন দূরে রাখা, সবচেয়ে বড় ব্যাপার দুশ্চিন্তা কম করার কথা জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। কারণ যত বেশি স্ট্রেস বাড়বে ততবেশি তা প্রভাব ফেলবে দুঃস্বপ্নের উপর।

Bad Dream