ননদ-ভাজের লড়াই দেখতে মুখিয়ে পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথি

20

নিজস্ব প্রতিনিধি: ননদ-ভাজের লড়াই দেখতে মুখিয়ে পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথি পুরসভা। পরিবার আলাদা হলেও, সম্পর্কের বন্ধন অটুট। রাজনীতিই তাঁদের দাঁড় করিয়েছে দুই মেরুতে। কারণ পুরভোটে তাঁরা দুই পরস্পর বিরুদ্ধ দল তৃণমূল এবং বিজেপির প্রার্থী।

কাঁথি পুরসভার ২০ নম্বর ওয়ার্ডে বাড়ি শ্রাবণী পালের। এই ওয়ার্ডেই বাড়ি তাঁর ননদ অপর্ণা পাল বেরার। শ্রাবণী তৃণমূলের প্রার্থী। আর অপর্ণা প্রার্থী হয়েছেন পদ্ম প্রতীকে। ননদ-ভাজের সম্পর্ক বড়ই মধুর। যদিও রাজনীতিতে দুজনে দুই মেরুর বাসিন্দা। দুই পরিবার নিকটতম প্রতিবেশীও। দূরত্ব বলতে দুই বাড়ির মাঝে থাকা একটি মাটির উনুন।

পাশাপাশি বাড়ি হলেও, ননদ-ভাজের সম্পর্ক খুবই নিবিড়। সকাল হলে ঘরের কাজ সেরে দুজনেই বেরিয়ে পড়ছেন প্রচারে। দুজনেই ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে বোঝাচ্ছেন তাঁর দলকে কেন ভোট দেওয়া প্রয়োজন। ননদ ভাজে পারিবারিক বিবাদ না থাকলেও, ভোটের ময়দানে কেউ কাউকে এক ইঞ্চিও জমি ছাড়বেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন শ্রাবন্তী এবং অপর্ণা  দুজনেই। প্রচারে বেরিয়ে দুজনেই অন্য দলের সম্পর্কে কটু কথা বললেও, ব্যক্তিগত আক্রমণ কেউ কাউকেই করছেন না।

ননদ ভাজ প্রার্থী হওয়ায় আতান্তরে পড়েছেন পাল পাড়ার বাসিন্দারা। তাঁদের কাছে দুজনেই খুব কাছের মানুষ। তাই তাঁরাও ভেবে পাচ্ছেন না ঠিক কাকে ভোট দেবেন। অপর্ণাদেবীর মা অবশ্য বলছেন, মেয়ে আর বৌমা দুজনেই লটারি কেটেছে। কার ভাগ্যে পুরস্কার জুটবে, সেটা আমরা কেউই জানি না।

কেবল অপর্ণাদেবীর মা নন, পাল পাড়ার বাসিন্দারাও জানেন না ঠিক কার ভাগ্যে শিকে ছিঁড়বে!