Home Featured Patharpratima prostitiution: আশ্রমেই চলছে মধুচক্র, অভিযোগে গণপিটুনির শিকার এক তান্ত্রিক সাধু!

Patharpratima prostitiution: আশ্রমেই চলছে মধুচক্র, অভিযোগে গণপিটুনির শিকার এক তান্ত্রিক সাধু!

by Arpita Sardar

মহানগর ডেস্ক: সামনে আশ্রম, আর পিছনেই অবাধে চলছে মধুচক্র(Prostitiution)। সেই অভিযোগে আশ্রমের প্রধান ওই তান্ত্রিক সাধুকে গাছে বেঁধে গণপিটুনি (Massacre) দিল এলাকার মানুষ। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার (South 24 pgs) পাথরপ্রতিমার (Patharpratima) অচিন্ত্যনগরের আইপ্লট বিষ্ণুপুর মহানমি স্থলি আশ্রমে (monestry)। এলাকার মানুষের অভিযোগ এখানে হঠাৎ গজিয়ে ওঠে ওই আশ্রম। সেখানে পূজোর নাম করেই রমরমিয়ে চলছিল দেহব্যাবসা (Prostitution flourishing) । আর এর পিছনে মদত ছিল আশ্রমের প্রধান মহারাজ অমলেশ চক্রবর্তীর।

আরও পড়ুন: বগটুই কাণ্ডে নয়া মোড়,আনারুলের নির্দেশেই অগ্নিলিলা দেখেছিল গ্রামবাসী

স্থানীয় এক গৃহবধূ জানান, ‘তিনি আরম্বর করে কৃষ্ণ ঠাকুরের পূজা করতেন, এমনকি তন্ত্র-মন্ত্রের সঙ্গে সঙ্গে মানুষের নানান ধরনের রোগ সারিয়ে দেওয়ায় প্রতিশ্রুতি দিয়ে মাদুলি কবজ দিতেন। সেই বিশ্বাস নিয়েই গ্রামের মানুষ তাঁর কাছে আসত। কিন্তু আশ্রমে এর ফাঁকে অবিবাহিতা বহু মহিলাদের অবাধ যাতায়াত দেখেই এলাকার মানুষের সন্দেহ হয়।’ পাশাপাশি চাকরি পাইয়ে দেওয়ার নাম করে গ্রামের এক শিক্ষিকার মেয়েকে এই কুপ্রস্তাব দিয়ে নানান হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ ও ভয়েস রেকর্ডিং পাঠান বলে দাবি মেয়েটির মায়ের। এরপর সেগুলোই ওই মেয়েটির মা গ্রামের মানুষকে দেখালে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে তারা। এরপরই সাধুকে আশ্রম থেকে বের করে গাছে বেঁধে পেটান উত্তেজিত জনতা।

অন্যদিকে এই সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে অভিযুক্ত প্রহিত সাধু। তিনি জানান, ‘মেয়েটির মা ইচ্ছে করেই মিথ্যে অভিযোগ এনে গ্রামবাসীকে ক্ষিপ্ত করছেন।’

তবে শুধু সাধু নয়, গ্রামবাসীদের অভিযোগ এই অমলেশ চক্রবর্তীর দুজন দোসরও ছিল। কালিপদ সাউ ও রঞ্জন মাইতি। তিনজনকে সেই অভিযোগে শনিবার উত্তেজিত জনতা বেধড়ক মারধোর করে তিনজনকেই পাথরপ্রতিমা থানার পুলিশের হাতে তুলে দেয় জনতা। ঘটনায় এলাকায় সৃষ্টি হয়েছে চরম বিশৃঙ্খলা। ইতিমধ্যেই সাধুসহ বা কি দুজনকে গ্রেফতার করে তদন্ত শুরু করেছে পাথরপ্রতিমা থানার পুলিশ।

You may also like