Bhupesh Baghel: লখনউ বিমানবন্দরে ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রীকে বাধা, ওখানেই ধর্না ভূপেশ বাঘেলের

39
Bhupesh Baghel
লখনউ বিমানবন্দরে ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রীকে বাধা, ওই স্থানেই ধর্না ভূপেশ বাঘেলের

মহানগর ডেস্ক: উত্তরপ্রদেশের লখিমপুর খেরির কৃষক হত্যার ঘটনায় উত্তাল গোটা দেশ। প্রত্যেক বিজেপি বিরোধী দলের নেতা নেত্রীরা সর্বতভাবে ধিক্কার জানিয়েছেন এই ঘটনার। একদিকে কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়ঙ্কা গান্ধিকে ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করা হয়েছে মঙ্গলবার দুপুরে।

আর অন্যদিকে ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল লখনউ বিমানবন্দরে অবতরণ করল তাঁকে বিমানবন্দরের বাইরে যেতে বাধা দেওয়া হয় ফলে তিনি ওই স্থানেই ধর্নায় বসেছেন। এই প্রসঙ্গে ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী বেশ কয়েকটি টুইট করেছেন। তাঁরই টুইট করা একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, এক পুলিশ কর্মকর্তা তাঁকে বিমানবন্দরের বাইরে যেতে বাধা প্রদান করছেন এবং ভূপেশ বাঘেল বলছেন , ‘ আমি লখিমপুর খেরি যাচ্ছি না। আমি প্রিয়ঙ্কা গান্ধির সঙ্গে দেখা করতে এসেছি।’

এরপর বেশ কয়েকটি ছবিও টুইট করে লিখেছেন, ‘ কোনও আদেশ ছাড়াই আমাকে এয়ারপোর্টের বাইরে যেতে বাধা দেওয়া হচ্ছে ।’ এয়ারপোর্টে ধর্নায় বসাকালীনই তিনি সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘ রবিবার রাতে প্রিয়ঙ্কা গান্ধি লখিমপুরের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিলেন এবং সিতাপুরে তাঁকে আটক করা হয়। আমার সোমবার সকালে সেখানে যাওয়ার কথা ছিল কিন্তু উত্তরপ্রদেশ সরকারের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল যাতে লখনউ বিমানবন্দরে আমার বিমানটিকে অবতরণ করতে না দেওয়া হয়।’

তিনি যোগী সরকারকে বিঁধে আরও বলেন, ‘ ১৪৪ ধারা তো লখিমপুরে জারি করা হয়েছে, তাহলে লখনউ বিমানবন্দরে অবতরণ করতে কীসের বাধা দেওয়া হয়েছে আমাকে? উত্তরপ্রদেশ আসতে গেলে কি এবার আলাদা করে ভিসা করতে হবে? গণতান্ত্রিক অধিকার কি খর্ব করে দেওয়া হয়েছে এই রাজ্যে? মানুষকে কেন বাধা দেওয়া হচ্ছে