‘বিদ্রোহ’ ঠেকাতে ভেঙে দেওয়া হল বিজেপির সব সেল!

8

নিজস্ব প্রতিনিধি: বিদ্রোহ ঠেকাতে ভেঙে দেওয়া হল বিজেপির সব সেল। দলের রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদারের নির্দেশে ওই সব সেল ভেঙে দেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে জারি হয়েছে বিজ্ঞপ্তিও। নতুন করে দায়িত্ব ভাগ করে দেওয়া হবে বলেও জানানো হয়েছে ওই বিজ্ঞপ্তিতে।

কমিটি গঠন নিয়ে অসন্তোষের জেরে ক্ষোভ পুঞ্জীভূত হয় রাজ্য বিজেপিতে। দলের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছাড়ার হিড়িক পড়ে যায়। মতুয়া সম্প্রদায়ের প্রতিনিধি নেই বলে ক্ষোভ প্রকাশ করে গ্রুপ ছাড়েন মতুয়া বিধায়কদের কয়েকজন। ওই একই অভিযোগ তুলে গ্রুপ ছাড়েন সাংসদ বিজেপির শান্তনু ঠাকুরও। এদিকে দলীয় নেতৃত্বের প্রতি অসন্তোষ প্রকাশ করে গ্রুপ ছাড়েন বীরভূমের কয়েকজন নেতাও।

এর পরেই সব সেল ভেঙে দেওয়ার বিজ্ঞপ্তি জারি করেন দলীয় নেতৃত্ব। মিডিয়া সেল, স্বাস্থ্য সেল, শিল্প সেল, লিগ্যাল সহ রাজ্য বিজেপির সব সেলই ভেঙে দেওয়া হয়েছে। তবে ঠিক কারণে হঠাৎ এমন সিদ্ধান্ত, তা স্পষ্ট করা হয়নি বঙ্গ বিজেপির তরফে। এ বিষয়ে রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদারও কিছু জানাননি। তবে দলের একটি অংশের মতে, দলের ভিতরে যে বিদ্রোহের আগুন জ্বলছে, সেই আগুন নেভাতেই এহেন সিদ্ধান্ত। অন্য একটি অংশের মতে, নয়া সভাপতি নতুন কমিটি গঠন করেছেন। সেলগুলিও নতুন করে গড়ে তোলা হবে। তাই ভাঙা হয়েছে।

এদিকে, একাধিক বিদ্রোহী নেতাকে ছেঁটে ফেলা হতে পারে বলেও গেরুয়া শিবিরের একটি সূত্রের খবর। ইতিমধ্যেই দলের প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের ব্যাপারে নাকি কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের কাছে একপ্রস্ত অভিযোগ জানানো হয়েছে। তার পরেই সেল ভেঙে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিঃসন্দেহে গুরুত্বপূর্ণ বই কি!