Home Featured Kailash Vijayvargiya: অগ্নিবীরদের নিয়ে মন্তব্য করে বিপাকে বিজেপি নেতা, দায়ের অভিযোগ

Kailash Vijayvargiya: অগ্নিবীরদের নিয়ে মন্তব্য করে বিপাকে বিজেপি নেতা, দায়ের অভিযোগ

by Anamika Nandi
Kailash Vijayvargiya: অগ্নিবীরদের নিয়ে মন্তব্য করে বিপাকে বিজেপি নেতা, দায়ের অভিযোগ

মহানগর ডেস্ক: হায়দরাবাদের বেগম বাজার থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে কৈলাস বিজয়বর্গীয়র (Kailash Vijayvargiya) বিরুদ্ধে। জানা গিয়েছে, কংগ্রেসের (Congress) সিনিয়র নেতা এবং প্রাক্তন রাজ্যসভার সদস্য ভি হনুমন্ত রাও (V Hanumanth Rao) অগ্নিবীরদের নিয়ে বিজেপি নেতার মন্তব্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন। কংগ্রেস নেতার কথায়, বিজয়বর্গীয়র মন্তব্য সেনাবাহিনীর জন্য অপমানজনক। মূলত আগের সপ্তাহের শেষের দিকে ভারতীয় জনতা পার্টির এই নেতা বলেন, বিজেপি অফিসে দারোয়ানের চাকরির জন্য অগ্নিবীরদের অগ্রাধিকার দেবেন।

বিজয়বর্গীয়র কথায়, বিজেপি অফিসে নিরাপত্তার দায়িত্বে অগ্নিবীরদের নিয়োগ করব। প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমার এক বন্ধু ৩৫ বছর বয়সী একজন অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মীকে তাঁর নিরাপত্তা প্রহরী হিসেবে নিয়োগ করেছিল। তাঁর প্রতি বিশ্বাস করেছিল কারণ, তিনি একজন সৈনিক। নেতার দাবি, নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়ে একজন সৈনিককে বেশি বিশ্বাস করা যায়। কিন্তু তাঁর এই মন্তব্যের বিরোধিতা করেছেন অনেকেই। কেন্দ্রীয় সরকারের এই নয়া প্রকল্প এমনিতেই দেশের যুব সম্প্রদায়ের বিক্ষোভের কারণ হয়ে উঠেছে। এহেন পরিস্থিতিতে বিজেপি নেতার মন্তব্য নতুন করে বিতর্ক তৈরি করেছে।

আরও পড়ুন: রাজনীতিতে নয়া মোড়,বিক্ষুব্ধ শিবসেনা বিধায়কদের স্বাগত জানাল বিজেপি

গত ১৪ জুন রাজনাথ সিং মোদি নেতৃত্বাধীন সরকারের অগ্নিপথ প্রকল্পের ঘোষণা করেছেন। যেখানে বলা হয়েছে, চার বছরের চুক্তিভিত্তিতে নৌ, সেনা ও বিমান বাহিনীতে যুবক-যুবতীদের নিয়োগ করা হবে। তাঁদের পোশাকি নাম হবে অগ্নিবীর। মেয়াদ শেষে তাঁরা এককালীন টাকা পাবে। কিন্তু থাকবেনা পেনশনের সুযোগ-সুবিধে। কংগ্রেস নেতার কথায় বিজয়বর্গীয়কে গ্রেফতার করা হোক। তাঁর মন্তব্য ভারতীয় সৈন্যদের জন্য যথেষ্ট অপমানজনক। যদিওবা পরবর্তীতে নিজের মন্তব্যের ব্যাখ্যা দিয়েছেন বিজেপি নেতা। তিনি বলেন, সৈনিকরা মেয়াদ শেষে শ্রেষ্ঠ জায়গায় কাজ করতে পারবে বলে, বোঝাতে চেয়েছিলেন। কিন্তু তার ভুল ব্যাখ্যা দেওয়া হয়েছে।

চলতি বছর মোট ৪৬ হাজার অগ্নিবীর নিয়োগ করা হবে। এক শীর্ষ সামরিক কর্তার কথায়, ভবিষ্যতে এই সংখ্যা আরও বাড়বে। সশস্ত্র বাহিনীতে নিয়োগপ্রাপ্তদের প্রবেশের বয়স ২১ বছর পর্যন্ত নির্ধারণ করা হয়েছে। সেইসঙ্গে বলা হয়েছে, প্রার্থীদের একটি হলফনামা দিতে হবে যে, তাঁরা কোনও ধরনের সহিংসতার সঙ্গে জড়িত ছিল না।

You may also like