BJP Vs TRS : সমানে সমানে টক্কর, বিজেপি-টিআরএসের শক্তিপ্রদর্শনে সরগরম নিজামের শহর

58
bjp and tsr showup
একইদিনে নিজামের শহরে বিজেপি আর টিআরএসের অনুষ্ঠান। সরগরম শহর।

মহানগর ডেস্ক: সমানে সমানে পাল্লা। এ বলে আমায় দেখ,ও বলে আমায়। হায়দ্রাবাদে (Hyderabad)  আজই শুরু হচ্ছে বিজেপির দুদিনের জাতীয় কর্মসমিতির বৈঠক। আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মতো (Narendra Modi) হেভিওয়েট নেতা। আর আজই রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে বিরোধী জোট প্রার্থী যশবন্ত সিনহার (Opposion Candidate Yashbant Sinha) সমর্থনে বিশাল সমাবেশের আয়োজন করেছে কেসি রাওয়ের টিআরএস। যে দুই কর্মসূচির জেরে এদিন সকাল থেকেই সরগরম নিজামের শহর। ষশবন্তকে বেগমপেট বিমানবন্দরে স্বাগত জানাবেন তেলঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কেসি রাও (KC Rao)। আবার ওই বিমানবন্দরে বিমানে উড়ে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

মোদী আসার কয়েকঘণ্টা আগেই যশবন্ত ওই বিমানবন্দরে আসার কথা। সেখান থেকে বিরোধী জোটের প্রার্থীকে নিয়ে বাইক মিছিল করে নিয়ে যাওয়া হবে জলবিহারে। সেখানে অনুষ্ঠিত হবে সভা। এদিন যশবন্তের এআইএমআইএম ও কংগ্রেস নেতাদের সঙ্গে দেখা করার কথা রয়েছে। তাঁদের সঙ্গে দেখা করে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে সমর্থন চাইবেন বিরোধী জোট প্রার্থী। যশবন্ত জানিয়েছেন তিনি যদি রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে জেতেন সেটা এনডিএ প্রার্থী দ্রৌপদী মুর্মুর জয়ের চেয়ে অনেক বেশি সাংবিধানিক হবে।

ইতিমধ্যে রাস্তায় রাস্তায় শুরু হয়ে গিয়েছে পোস্টার,কাটআউটের যুদ্ধ। বিজেপির কাটআউট আর যশবন্তের পোস্টারে ছয়লাপ গোটা শহর। এনিয়ে গত ছ মাসে মোট তিনবার প্রোটোকল অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে অভ্যর্থনা জানাতে যাননি কেসিআর। মে মাসে মোদী এসেছিলেন কুড়িতম স্কুল অব ইন্ডিয়ান বিসনেসের অনুষ্ঠানে,তখন মুখ্যমন্ত্রী বেঙ্গালুরুতে। এমনকী ফেব্রুয়ারি মাসেও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক এড়িয়ে গিয়েছিলেন। সেসময় কেসিআর হায়দ্রাবাদে স্ট্যাটু অব ইকোয়ালিটি কর্মসূচির উদ্বোধন করছিলেন।

ঘটনা হল পাঁচ বছর পর রাজধানী দিল্লির বাইরে এটিই প্রথম পদ্মশিবিরের প্রধান সিদ্ধান্ত নির্ণয় কমিটির বৈঠক। মোদী ছাড়া অংশ নেবেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, উনিশটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা। থাকছেন বিজেপির প্রবীণ নেতারা। রবিবার বিকেলে হায়দ্রাবাদে একটি সমাবেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী। সবমিলিয়ে দুই বিরোধী শিবিরের শক্তি প্রদর্শনের দৌলতে সরগরম নিজামের শহর।