‘মানুষ ভোট দিতে পারলে বিজেপি জিতবে, লুঠ হলে তৃণমূল জিতবে’, প্রচারে বেরিয়ে জানালেন শুভেন্দু অধিকারী

11
Suvendu adhikari
নন্দীগ্রামের মতো ভোট হলে বিজেপির জয়, ভবানীপুরের মতো ভোট হলে তৃণমূলের জয়, জানালেন শুভেন্দু অধিকারী।

মহানগর ডেস্ক: সম্প্রতি বিজেপির তারকা প্রচারকের লিস্ট প্রকাশিত হয়েছিল। যেখানে নাম ছিল বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর। ইতিমধ্যে কলকাতা পুরভোটের জন্য বিভিন্ন প্রার্থীর হয়ে প্রচারে নেমেছেন তিনি। রবিবাসরীয় প্রচারে নেমে ফের একবার তৃণমূলকে কটাক্ষ করেন শুভেন্দু অধিকারী। তিনি জানান, ভোট ঠিক ভাবে হলে বিজেপি জিতবে। রবিবার তিনি কলকাতার ২২ নম্বর ওয়ার্ডের বিজেপি প্রার্থী মীনাদেবী পুরোহিতের সমর্থনে প্রচার করেন।

তাঁর কথায়, ২২ নম্বর ওয়ার্ড থেকে মিনাদেবী প্রচুর ভোটে জিতবেন। ভোট প্রচারে করতে এসে বিরোধী দলনেতা জানান, কলকাতা পৌরসভা ভোট বাকি ওয়ার্ডেও তাই হবে। মানুষ ভোট দিতে পারলে বিজেপি জিতবে। আর যদি লুঠ হয়, তাহলে তৃণমূলের জয় হবে। একইসঙ্গে তিনি কটাক্ষের হাসি হেসে বলেন, নন্দীগ্রামের মতো ভোট হলে বিজেপির জয়, ভবানীপুরের মতো ভোট হলে তৃণমূলের জয়। প্রসঙ্গত, একুশের বিধানসভা নির্বাচনে নন্দীগ্রামে সামান্য কিছু সংখ্যায় হেরে গিয়েছিলেন বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁকে হারাতে হয়েছিল বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর কাছে। যদিও পরে উপনির্বাচনে ভবানীপুর থেকে রেকর্ড ভোটে জয় হয় তাঁর। তখন শাসকদল অভিযোগ তুলেছিল যে গণনায় কারচুপি করা হয়েছে।

এমনকি সেই সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে গত ১৭ জুন হাইকোর্টে মামলা দায়ের করা হয় তৃণমূলের পক্ষ থেকে। অন্যদিকে উপনির্বাচনে ভবানীপুর থেকে জয়লাভ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে শুভেন্দু অধিকারী অভিযোগ করেছিলেন, মানুষ ইচ্ছেমতো ভোট দিতে পারেনি। অনেককে ভয় দেখিয়ে ভোট দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে, প্রচারে বেরিয়ে বিজেপি প্রার্থী মিনাদেবী জানান, মানুষ ২৫ বছর ধরে আশির্বাদ করে এসেছে আমাকে। এবারও তার অন্যথা হবে না। তিনি আরও জানান, শুভেন্দু অধিকারী এসেছেন। আমার নেতা কর্মীরা আজ খুশি। সবাই জসে ফিরে গিয়েছে। সকল মানুষ তো বলছে ভোট আপনার।