‘বিরোধিতার নামে রাজ্যের সাফল্যকে ছোট করবেন না’, স্কচ অ্যাওয়ার্ড নিয়ে শুভেন্দুকে কটাক্ষ ব্রাত্যর

7
Bratya basu
স্কচ অ্যাওয়ার্ড নিয়ে শুভেন্দু অধিকারীর করা মন্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানালেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু।

নিজস্ব প্রতিনিধি, নদিয়া: সম্প্রতি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুকুটে নয়া পালক যুক্ত হয়েছে। শিক্ষার স্কচ অ্যাওয়ার্ড। কিন্তু সেই নিয়েও কটাক্ষ করতে ছাড়েনি বিরোধী পক্ষ। সম্প্রতি বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী অভিযোগ তুলেছিলেন, টাকা দিয়ে এই পুরস্কার কিনেছে রাজ্য সরকার। সেই মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষা মন্ত্রী ব্রাত্য বসু কল্যাণীতে এক অনুষ্ঠানে এসে কটাক্ষ করেন।

তিনি জানান, ‘বিজেপি শাসিত গুজরাট, আসাম, উত্তরপ্রদেশও স্কচ অ্যাওয়ার্ড পেয়েছে। তাহলে তাঁরা কত টাকা দিয়ে পেয়েছে? সেটা হয়তো শুভেন্দু অধিকারী জানবেন। কারণ উনি তো বিজেপির লোক তাই। যদি পারেন সেই টাকার পরিমাণ যেন রাজ্য সরকারকে জানিয়ে দেন তিনি’। এর পাশাপাশি শিক্ষা মন্ত্রী আরও জানিয়েছেন, ‘বিরোধিতার নামে রাজ্যের সাফল্যকে ছোট করবেন না। বিরোধিতার নামে মুখ্যমন্ত্রীকে খাটো করে দেখানোর চেষ্টা করবেন না’।

একই সঙ্গে তৃণমূল নেতাকে আগামী কাল স্কুল খোলা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, ‘কয়েকটা জায়গায় স্যানিটাইজার কাজ এখনও হয়নি। তা আমি স্বীকার করে নিচ্ছি। সেগুলো খুব তাড়াতাড়ি ডিএম এবং বিডিওরা করে ফেলবেন। সেই দিকেই আমাদের গোটা নজর রয়েছে’। এদিন স্কুল খোলা পাশাপাশি ভ্যাকসিন নিয়ে মন্ত্রীকে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, ‘কেন্দ্রীয় সরকার বৈষম্যমূলক আচরণ করছেন ভ্যাকসিন নিয়ে। বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলোতে বেশি ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে। তবে সে ক্ষেত্রে সব রাজ্যই যাতে সমানভাবে ভ্যাকসিন পায় এটাই সকলে চায়। কারণ ভ্যাকসিন সাধারন জনগনের জন্য। এরাজ্য যেন ভ্যাকসিন পায় সেটা কেন্দ্রীয় সরকার দেখা উচিত’।

উল্লেখ্য, রবিবার শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু জানিয়ে দিয়েছেন, বর্তমানে সমস্ত নিয়ম বিধি মেনেই নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত স্কুল খোলা হচ্ছে। ধাপে ধাপে বাকি ক্লাসগুলির জন্য স্কুল খোলা হবে। আবারও স্বাভাবিক নিয়মে পড়ুয়ারা স্কুলে এসে শিক্ষা গ্রহণ করতে পারবে।