খিদিরপুরে রুদ্রনীলের মিছিলে ইটবৃষ্টি, অভিযোগ তৃণমূলের দিকে

7
kolkata news

নিজস্ব প্রতিবেদন : প্রচারে বেরিয়ে ফের আক্রান্ত গেরুয়া শিবিরের তারকা প্রার্থী রুদ্রনীল ঘোষ। আজ, সোমবার খিদিরপুর এলাকায় প্রচারে যান তিনি। অভিযোগ, সেখানেই তাঁকে লক্ষ্য করে ব্যাপক ইটবৃষ্টি হয়। পুলিশ থাকলেও কোনও ব্যবস্থা নেয়নি বলেও অভিযোগ রুদ্রনীলের।

এদিন সকালে খিদিরপুরের ৭৭ নম্বর ওয়ার্ডে প্রচার করছিলেন ভবানীপুরের বিজেপি প্রার্থী রুদ্রনীল ঘোষ। আচমকাই তাঁকে লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি ইটবৃষ্টি করা হয় বলে অভিযোগ। খবর করতে গিয়ে আক্রান্ত হন সংবাদমাধ্যমের এক কর্মীও। রুদ্রনীল বলেন, আমাদের শান্তিপূর্ণ প্রচারে বাধা দেওয়া হচ্ছে। পুলিশ আমাদের বলছে, আপনারা চলে যান। বিজেপির অভিযোগ, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই ইটপাটকেল ছুঁড়েছে রুদ্রনীলকে লক্ষ্য করে। এলাকায় প্রচার করা যাবে না বলেও হুমকি দিয়েছে। গেরুয়া শিবিরের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তৃণমূল নেতৃত্ব। তাঁদের পাল্টা দাবি, খিদিরপুর এলাকায় অশান্তি সৃষ্টির চেষ্টা করছে বিজেপি।

ভবানীপুরে এবার বিজেপির বাজি তৃণমূল ছেড়ে আসা রুদ্রনীল। এলাকাটি তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের খাসতালুক বলে পরিচিত। দিন কয়েক আগে একবার প্রচারে বেরিয়ে আক্রান্ত হয়েছিলেন রুদ্রনীল। সেবারও তাঁকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছোঁড়া হয়েছিল বলে অভিযোগ। ওই ঘটনায়ও রুদ্রনীল কাঠগড়ায় তোলেন তৃণমূলকে। সেদিন তিনি সরাসরি অভিযোগের আঙুল তুলেছিলেন মমতা ও ফিরহাদ হাকিমের দিকে। সেদিনও যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছিলেন তৃণমূল নেতৃত্ব।

এদিনের ঘটনার পর পুলিশের ভূমিকায়ও বেজায় ক্ষুব্ধ বিজেপির এই তারকা প্রার্থী। তিনি বলেন, যখন ইটবৃষ্টি হয়, তখন ঘটনাস্থলে পুলিশ ছিল। যদিও নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করেছে পুলিশ। ক্ষুব্ধ রুদ্রনীল বলেন, ব্যাজ খুলে পুলিশ উর্দিতে তৃণমূলের পতাকা লাগিয়ে নিন না!