‘মানুষের উন্নয়নের টাকায় বাড়ি বানিয়েছে’, খড়্গপুরের পুরপ্রশাসকের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক বিধায়ক হিরণ

49

মহানগর ডেস্ক: বিজেপির অন্দরে ধরেছে ফাটল। এমনকি বহু নেতাকর্মীরাই ত্যাগ করেছেন হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ। এহেন পরিস্থিতিতে খড়্গপুরের সাংসদ দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধেও প্রকাশ্যেই ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা গিয়েছে বিধায়ক হিরণময় চট্টোপাধ্যায়। আজ্ঞে হ্যাঁ, অভিনেতা হিরণ দিন কয়েক আগেই বিজেপির হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ থেকে নাম সরিয়েছেন। এবার নেতাজির জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে একটি সামাজিক অনুষ্ঠানে যোগদান করে স্পষ্টভাবে খড়্গপুরের পুরপ্রশাসকের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তোলেন তিনি।

রবিবার ছিল নেতাজির ১২৫ তম জন্মবার্ষিকী। সেই উপলক্ষেই নিজের বিধানসভা অঞ্চলের একটি কর্মসূচিতে গিয়েছিলেন অভিনেতা-বিধায়ক হিরণ চট্টোপাধ্যায়। সেখান থেকেই খড়্গপুর পুরসভার প্রশাসক প্রদীপ সরকারকে সরকারি টাকা মেরেছেন বলে দুর্নীতির অভিযোগ তুললেন বিধায়ক।

হিরণ বলেন, ‘খড়্গপুরের উন্নয়নের সব টাকা আত্মসাৎ করেছেন প্রদীপ। মাটির তলায় লুকিয়ে রেখেছেন সেই টাকা। আমি মাটি খুঁড়ে ওই টাকা উদ্ধার করব। খড়্গপুর আজ শ্মশানে পরিণত হয়েছে। এখনকার হাসপাতালে রোগী গেলে তিনি আর বেঁচে ফেরেন না। সাত বছর আগে খড়্গপুরের মানুষ যে কি ভুল করেছিলেন।’

মূলত রাজনৈতিক মহলে কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে, পদ্ম শিবিরের প্রতি বিদ্রোহ ঘোষণা করে আবারও তৃণমূলে ফিরতে চাইছেন হিরণ। আর এই অভিযোগ খানিকটা হলেও সেই ধারণাকে সত্যি করতে চলেছে। এছাড়াও এদিন হিরণের মুখে শোনা যায়, ‘উন্নয়নের জন্য প্রধানমন্ত্রী টাকা পাঠিয়েছেন। সেই টাকা মুখ্যমন্ত্রীও দিয়েছেন পুরসভাকে। কিন্তু উনি সব টাকা আত্মসাৎ করেছেন। মানুষের উন্নয়নের টাকায় নিজের বাড়ি বানিয়েছেন। সব দেখছে মানুষ। এবার আমি সব টাকা উদ্ধার করব।’