হাঁসখালি ধর্ষণ কাণ্ডের তদন্ত ভার সিবিআইকে দিল কলকাতা হাইকোর্ট, ২ মে রিপোর্ট তলব আদালতের

41

মহানগর ডেস্ক: হাঁসখালি ধর্ষণ কাণ্ড নিয়ে উত্তাল গোটা রাজ্য। তারপর চলতি সপ্তাহের সোমবার এই প্রসঙ্গ নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের পর এই ইস্যু নিয়ে রাজ্য রাজনীতির অবসান বিতর্কের ঝাঁঝ আরও বৃদ্ধি পেয়েছিল। এবার এই ঘটনার তদন্তের দায়িত্ব সিবিআইকে দিল কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ।

আরও জানান হয়েছে যে হাইকোর্টের নজরদারিতেই হবে এই সিবিআই তদন্ত। এছাড়াও যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তত তাড়াতাড়ি নথি হস্তান্তরের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে পুলিশকে। আগামী ২ মে তদন্তের রিপোর্ট পেশ করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সিবিআইকে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, হাঁসখালি ধর্ষণকাণ্ডে প্রভাকর পোদ্দার নামে আরও এক যুবককে গ্রেফতার করল পুলিশ। মূল অভিযুক্ত ব্রজগোপালকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ওই যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

জানা যায় ঘটনার দিন অভিযুক্ত প্রভাকর ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিল। উল্লেখ্য গত ৫ তারিখে নদিয়ার হাঁসখালি থানার গ্রাম পঞ্চায়েতের শ্যামনগরে এক নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে। অভিযোগ তৃণমূল পঞ্চায়েত সদস্য সমর গোয়ালীর ছেলে ব্রজগোপাল গোয়ালীর বিরুদ্ধে। তীব্র যন্ত্রণায় অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের ফলে ওই নাবালিকার মৃত্যু হয়।

এরপর প্রমাণ লোপাটের জন্য ওই নাবালিকাকে বলপূর্বক শ্মশানে দাহ করে দেওয়া হয়। শুধু তাই নয় পরবর্তী কালে যাতে কোন প্রমাণ না পাওয়া যায় সেই কারণে জল দিয়ে গোটা শ্মশান ধুয়ে ফেলা হয়।

এরপরই দুইদিন আগে নাবালিকার পরিবারের পক্ষ থেকে হাঁসখালি থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত ব্রজগোপাল গোয়ালীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাকে আদালতে তোলা হলে ১৪ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত।

এরপর এই রাতে জিজ্ঞাসাবাদ করে প্রভাকর পোদ্দার নামে এক যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে খবর মূল অভিযুক্তকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ওই যুবকের নাম জানা গেছে। তাকেও জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। আজ তাকে রানাঘাট মহাকুমা আদালতে তোলা হবে।