‘ট্যাবলো প্রসঙ্গে কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত অত্যন্ত হাস্যকর’, দাবি তৃণমূল সাংসদ সুখেন্দু শেখর রায়ের

31

মহানগর ডেস্ক: ২০২২ সালের প্রজাতন্ত্র দিবসকে দেশের জন্য আরও গুরুত্বপূর্ণ করে তোলার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। আর তার জন্য আয়োজন করা হয়েছে বিশেষ অনুষ্ঠানে। আর রাজধানীর সেই অনুষ্ঠান থেকে বাদ পড়েছে বাংলা এবং তামিলনাড়ুর ট্যাবলো। আর এই বিষয়টিকে ঘিরেই কেন্দ্র – রাজ্য সংঘাত পৌঁছেছে চরম পর্যায়ে। এহেন পরিস্থিতিতে রাজনীতিবিদ থেকে শুরু করে বিশেষজ্ঞরা সকলেই নিজস্ব মতামত প্রকাশ করছেন। এবার ট্যাবলেট নিয়ে মত প্রকাশ করলেন তৃণমূল সাংসদ সুখেন্দু শেখর রায়।

মঙ্গলবার সাংসদ সুখেন্দু শেখর রায় বলেন, “বাংলার মানুষকে অপমান করা হয়েছে। বাংলার বানানো ট্যাবলোকে বাতিল করে দিয়ে সিপিডব্লিউডির নেতাজির ওপর ট্যাবলো প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে। যারা কিনা কেন্দ্রের ঘর-বাড়ি বানায়, তাঁরা নেতাজির ট্যাবলো বানাতে পারে। অথচ পশ্চিমবঙ্গ সরকার দীর্ঘদিন প্রচেষ্টার পর একটা ট্যাবলো বানানোর পরেও তা বাতিল করে দেওয়া হল এটা অত্যন্ত হাস্যকর।”

এছাড়াও তিনি বলেন, “উত্তর প্রদেশ, উত্তরাখণ্ডে নির্বাচন হচ্ছে। অর্থাৎ সেখানকার মানুষের মন জয় করতে নেতাজির একটা ট্যাবলো তৈরি করে সেটা ধর্ম স্থানে ঢুকিয়ে দেওয়া হল। প্রজাতন্ত্র দিবসের সঙ্গে ধর্ম স্থানের কি সম্পর্ক এটা বাংলার মানুষের জানা নেই। এর উত্তর চায় মানুষ।”

প্রসঙ্গত, পশ্চিমবঙ্গের ট্যাবলো বাতিল করার পরই প্রধানমন্ত্রী মোদিকে চিঠি পাঠান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং গোটা বিষয়টি নিয়ে পুনরায় ভাবার অনুরোধ করেন। একইভাবে তামিলনাড়ুর ট্যাবলো সাধারণতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজ থেকে বাদ দেওয়ার পর প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছেন তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী এম কে স্ট্যালিন।