অশান্ত ভাটপাড়াকে শান্ত করতে মুখ্যমন্ত্রীকে পরামর্শ সুজনের

112
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ভাটপাড়ায় গণ্ডগোলের জন্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক তথা সদ্য নির্বাচিত বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংকেই দায়ী করলেন বাম পরিষদীয় নেতা সুজন চক্রবর্তী। ভাটপাড়ার গণ্ডগোলকে ‘এলাকা দখলের লড়াই’ আখ্যা দিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করতে মুখ্যমন্ত্রীকে সর্বদলীয় বৈঠক ডাকার পরামর্শও দিয়েছেন তিনি। একইসঙ্গে ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর প্রতিক্রিয়ার সমালোচনা করে তাঁর প্রতি সুজনের পরামর্শ, ‘সর্বদলীয় বৈঠক ডাকুন। বৈঠকে বলুন ফেল করেছি, সবাই আসুন।’

লোকসভা নির্বাচনের পরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নৈহাটি যাওয়ার পথে কয়েকজন তাঁর কনভয় লক্ষ্য করে জয় শ্রীরাম স্লোগান তুলেছিল। তার বিরোধিতা করে মুখ্যমন্ত্রী গাড়ি থেকে নেমে পাল্টা চ্যালেঞ্জ করেছিলেন। মমতার পুলিশ কয়েকজনকে আটকও করেছিল। এবার ভাটপাড়ায় মুখ্যমন্ত্রীর সেই বিরোধিতারই জবাব দেওয়া হচ্ছে বলে মনে করছেন সুজন চক্রবর্তী। তাঁর কথায়, ‘ভাটপাড়ায় যে সব ঘটনা ঘটছে তা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অর্জুন সিংয়ের অনুপ্ররণায় হচ্ছে।’ ভাটপাড়ার গণ্ডগোল আসলে এলাকা দখলের লড়াই। মুখ্যমন্ত্রী যে বারবার ব্যারাকপুর এবং বিধাননগরের কমিশনার বদল করছেন, তারও কড়া সমালোচনা করেছেন তিনি।

গত বৃহস্পতিবার সকালে ভাটপাড়া থানার উদ্বোধন করতে যাচ্ছিলেন রাজ্য পুলিশের ডিজি সি. বীরেন্দ্র। কিন্তু মাঝরাস্তায় গণ্ডগোলের খবর শুনেও তিনি যেভাবে ভাটপাড়ায় না গিয়ে ফিরে যান, তারও কড়া সমালোচনা করেছেন সুজন চক্রবর্তী। গণ্ডগোল শুনে ডিজি পিছিয়ে এলেও বাম-কংগ্রেস পরিষদীয় দল ভাটপাড়ার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে আগামী শনিবার সেখানে যাচ্ছে বলেও সুজন চক্রবর্তী জানিয়েছেন।