পণ্য থেকে মানুষ, চিন বয়কটের ডাক ছড়িয়ে পড়ছে বিভিন্ন স্তরে

10

মহানগর ওয়েবডেস্ক: পূর্ব লাদাখের প্রকৃত সীমান্ত রেখায় ভারত–চিন সংঘর্ষের পর থেকেই সারা দেশ জুড়ে প্রবল চিন বিরোধী হাওয়া বইতে শুরু করেছে। অনেকেই চিনের স্মার্টফোন থেকে শুরু করে চিনা অ্যাপ ব্যবহারের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করার কথাও বলেছেন। সর্ব ভারতীয় ব্যবসায়ী সংগঠন (সিএআইটি) দেশের সমস্ত ব্যবসায়ী ও পরিষেবা প্রদানকারীদের কাছে আবেদন জানিয়েছেন, তারা যেন চিনের সমস্ত পণ্য বর্জন করেন। তাদের সেই আবেদনে এবার সাড়া দিল দিল্লির বাজেট হোটেলের সংগঠন ‘ধ্রুব’ (দিল্লি’জ হোটেল অ্যান্ড গেস্ট হাউজ ওনারস অ্যাসোসিয়েশন)। কোনও চিনা নাগরিক দিল্লির বাজেট হোটেলে যেন না উঠতে পারে তার জন্য সংগঠন তাদের সমস্ত হোটেল ও গেস্ট হাউজের মালিকদের কাছে আবেদন জানিয়েছে।

গালোয়ানের প্রকৃত সীমান্ত রেখায় চিন ভারতের সঙ্গে যে আচরণ করেছে, যে ভাবে ২০ জন ভারতীয় জওয়ান শহিদ হয়েছেন, তার ফলে দিল্লি’র হোটেল মালিকরা যে এমনই একটি সিদ্ধান্ত নেবে সেটা প্রত্যাশিতই ছিল বলে সংস্থার সাধারণ সম্পাদক জানান। তিনি বলেন, ”ব্যবসায়ীদের মধ্যে প্রবল ক্ষোভ তৈরি হয়েছে। এই সময়েই সিএআইটি সারা দেশে চিনা পণ্য বয়কটের ডাক দেয়। দিল্লির হোটেল এবং গেস্ট হাউস এই বয়কট কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছে। আমরা ঠিক করেছি এখন থেকে কোনও চিনের নাগরিককে আমরা দিল্লির কোনও বাজেট হোটেলে জায়গা দেব না।”

সিএআইটি’র সাধারণ সম্পাদক প্রবীন খান্ডেলওয়াল ‘ধ্রুব’র এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, একটি বিষয়ে পরিষ্কার যে সমাজের বিভিন্ন স্তর ও বিভিন্ন পেশার মানুষেরা চিনা পণ্য বয়কটের ডাকে সাড়া দিয়ে এগিয়ে আসছেন। তিনি জানান সিএআইটি’র পক্ষ থেকে জাতীয় স্তরের পরিবহণ সংস্থা, কৃষিজীবী, হকার, ছোট ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে ক্রেতা অর্থাৎ সনাজের সর্বস্তরের মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ করে চিন বয়কটের বার্তা পৌঁছে দেওয়ার কর্মসূচি নেওয়া হবে।