Delhi: শাড়ি পরে রেস্তোরাঁয় প্রবেশ নিষেধ! এমনই অপমানজনক ঘটনার শিকার হলেন এক সাংবাদিক

60

মহানগর ডেস্ক: ‘শাড়ি ‘ যা কিনা নারী সৌন্দর্যের অন্যতম পোশাক বলে গণ্য হয়ে আসছে। বছরের পর বছর ধরে নারীরা নিজেকে শাড়িতে পরিবেশন করছেন। শাড়ি বলা যায় ভারতীয় ঐতিহ্য এক অন্যতম পোশাক। এই শাড়ি পড়া নিয়েই এবার বিতর্কের মুখোমুখি হলেন এক সাংবাদিক (Journalist)। শাড়ি পড়ে দিল্লির (Delhi) এক রেস্তোরাঁয় গিয়েছিলেন ভারতীয় ইংরেজি মাধ্যমের এক সাংবাদিক। আর সেখানেই তাঁকে রেস্তোরাঁয় ঢুকতে দেওয়া হল না। রেস্তুরা কর্তৃপক্ষ তাঁকে পরিষ্কার জানিয়ে দেয়, স্মার্ট এবং ক্যাসুয়াল ড্রেস পড়ে আসার জন্য। এই ঘটনার ভিডিও ওই সাংবাদিক নিজে সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করেন। তার পরই ঘটনাটিকে নিয়ে চারিদিকে চর্চা শুরু হয়।

 

দিল্লির আনসল প্লাজার এক পানশালা রেস্তোরাঁয় অনিতা চৌধুরী নামক ওই সাংবাদিক গিয়েছিলেন। সেখানেই তিনি এক অভূতপূর্ব অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হন। নিজেই ভিডিও করে ঘটনাটি সোশ‌্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করে দেন। তারপরই তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় জানান, ‘এত অপমানিত আমি কোনওদিনও হয়নি।’ সঙ্গে টুইটারে তিনি দেশের প্রধানমন্ত্রী থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সহ একাধিক বিশিষ্ট ব্যক্তিদের ট্যাগ করেন।

 

 

 

এছাড়াও তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় লেখেন, ‘আমি শাড়ি পরেছিলাম বলে আমাকে রেস্তোরাঁয় প্রবেশ দেওয়া হয়নি। শাড়ি আমার দেশের জাতীয় পোশাক। আমি শাড়ি পরতে ভালবাসা একজন মানুষ। ভারতীয় পোশাক খুব আমার পছন্দের। ভারতীয় সংস্কৃতি আমি ভালবাসি। আমি মনে করি, শাড়ি হল সবচেয়ে মার্জিত, কেতাদুরস্ত এবং সুন্দর একটি পোশাক। কিন্তু সেই পোশাক পরার জন্য যেভাবে আমাকে অপমান করা হয়েছে, তা অত্যন্ত কষ্টদায়ক।’

 

 

যদিও রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষ সমস্ত বিষয়টি মানতে নারাজ। তাঁরা জানান, এমন কোনো নিয়ম নীতি নেই তাঁদের রেস্তোরাঁয় প্রবেশ করার জন্য। যে কর্মী এমন কথা বলেছেন, এটা সম্পূর্ণটাই তাঁর নিজস্ব ব্যক্তিগত অভিমত। তাই তাঁর এমন আচরণের জন্য, রেস্তোরাঁর তরফ থেকে ওই কর্মীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

Delhi