‘অখিলেশ যাদব বুঝেছেন যে উনি ভোটে জিততে পারবেন না, তাই মমতার মত নতুন মুখ নিয়ে যাচ্ছেন রাজ্যে’, কটাক্ষ দিলীপের

7

মহানগর ডেস্ক: দেশের পাঁচ রাজ্যে বেজে গিয়েছে ভোটের দামামা। আর এই পাঁচ রাজ্যের তালিকায় রয়েছে দেশের গরিষ্ঠ রাজ্যের নামও। উত্তরপ্রদেশের এই আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনকে পাথেয় করেই নিজেদের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে মরিয়া রাজ্যের রাজনৈতিক দলগুলো। বিশেষ করে রাজ্যের বিজেপি সরকারকে উৎখাত করতে কোমর বেঁধে ময়দানে নেমেছে সমাজবাদী পার্টি। আর এই বিধানসভা নির্বাচনে সপার হয়ে এবার প্রচারে নামবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সমাজবাদী পার্টির সহ সভাপতি কিরণময় নন্দ মঙ্গলবার বলেন যে অখিলেশ যাদবের দল চায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উত্তরপ্রদেশের আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে সপার হয়ে প্রচার করুন। আর এরপরেই সূত্র মারফত জানা গিয়েছে যে চলতি বছরে আগামী মাসের ৭ তারিখ লখনউ যাওয়ার কথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। এরপর ৮ ফেব্রুয়ারি সপা সুপ্রিমো অখিলেশ যাদবের সঙ্গে যৌথ ভাবে ভার্চুয়াল জনসভা করার কথা রয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর। সেই সঙ্গে লখনউতে সাংবাদিক বৈঠক করার পরিকল্পনাও রয়েছে।

এই বিষয়ে বুধবার নিজের মতামত প্রকাশ করেছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি এদিন বলেন,’ উত্তরপ্রদেশে কী প্রভাব আছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের? আসলে অখিলেশ যাদব বুঝে গিয়েছেন যে বড় বড় ডায়লগ দেওয়া সত্ত্বেও কিছু হওয়ার সম্ভাবনা নেই তাই উনি চেষ্টা করছেন যে এদিক ওদিক থেকে নতুন মুখ নিয়ে এসে যদি কিছুটা ভিড় করানো যায়।’

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, একুশের বাংলা বিধানসভা নির্বাচন চলাকালীন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন যে মোদি বিরোধী প্রচার করতে আর উত্তরপ্রদেশ থেকে যোগী সরকারকে উৎখাত করতে বারাণসীতে প্রচার করতে চান তিনি। সেই কথা মাথায় রেখেই মোদির নির্বাচনী এলাকায় প্রচার অখিলেশ যাদবের দলের হয়ে প্রচার করবেন মমতা, সূত্র মারফত এমনটাই জানা গিয়েছে।