অবশেষে খুলে গেল তারকেশ্বর মন্দিরের দরজা, বিধিনিষেধ থাকলেও খুশি পুণ্যার্থীরা

6
kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, তারকেশ্বর: সব পক্ষের সঙ্গে আলোচনার পর নির্দিষ্ট সময় মেনে আজ থেকে খুলল তারকেশ্বর মন্দিরের দরজা। প্রথম দফায় সকাল ৬ থেকে ৯.৩০ পর্যন্ত‍ এবং দ্বিতীয় দফায় বেলা ১১ থেকে ১টা পর্যন্ত‍ ভক্তদের জন‍্য খোলা থাকবে মন্দিরের দরজা। সেই সঙ্গে শ্রাবণ মাসের শ্রাবণী মেলা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। জলযাত্রা বন্ধ রাখার রাখার সিন্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে মন্দির কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। দুধ পুকুরে নামার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। সেই সঙ্গে তিন মাস পর মন্দির খোলায় খুশি ভক্ত ও স্থানীয় ব‍্যবসায়ীরা।

তারকেশ্বর মন্দিরের মোহান্ত মহারাজ জানান,  স্বাস্থ‍্য বিধির সমস্ত সরকারি নিয়ম মেনে চলতে হবে যাত্রীদের। যাত্রীদের মাস্ক পরে মন্দিরে প্রবেশ করা বাধ‍্যতামূলক। সেই সঙ্গে মন্দিরের চারটি গেটেই স‍্যানিটাইজার মেশিন বসানো হবে খুব শীঘ্রই। তবে যাত্রীদের গর্ভগৃহে প্রবেশ অনির্দিষ্টকালের জন‍্য বন্ধ।  চোঙের মাধ‍্যমেই জল ঢালতে হবে ভক্তদের। এবং দূর থেকে দর্শন করতে হবে বাবা তারকনাথকে। লক্ষাধিক মানুষের জমায়েত এড়াতে শ্রাবণী মেলা বন্ধ রাখার সিন্ধান্ত নিয়েছে মন্দির কর্তৃপক্ষ। শ্রাবণ মাসে গঙ্গা থেকে জল তুলে ‘বোলে ভোম, তারক বোম’ বলা লক্ষাধিক জলযাত্রীর আসার ওপরও বিধিনিষেধ জারি করা হয়েছে। তবে সারা শ্রাবণ মাস নির্দিষ্ট নিয়ম অনুযায়ী খোলা থাকবে মন্দির।

অন‍্যদিকে, মন্দির চত্বরে বিভিন্ন জায়গায় সতর্কীকরণ ব‍্যানার ঝোলানো হয়েছে। মন্দিরের দরজার সামনে গোল দাগ কেটে সামাজিক দূরত্ব অনুযায়ী যাতে ভক্তরা প্রবেশ করেন, তা চিহ্নিত করা হয়েছে কর্তৃপক্ষের তরফে। পাশাপাশি তিন মাস পর মন্দির খোলায় খুশি যাত্রীরা। অল্প সংখ‍্যক যাত্রী আজকে এলেও দীর্ঘদিন পর বাবাকে দ‍র্শন করে আনন্দিত যাত্রীরা। সেই সঙ্গে মন্দির লাগোয়া কয়েকশো লোকানদার আবার পসরা নিয়ে বসতে শুরু করেছেন। বিকিকিনি না হলেও তারা আশবাদী করোনাকে পরাজিত করে স্বাভাবিক হবে দেশ। আবারও ভক্তের জোয়ারে ভাসবে মন্দির চত্বর।