FOREIGN JOB FRAUD : বিদেশে চাকরির টোপ, প্রতারকদের ফাঁদে পা দিচ্ছেন কি?

101
job fraud

মহানগর ডেস্ক: হাতছানি দিচ্ছে মোটা অঙ্কের লোভনীয় চাকরি। তাও সেই চাকরি হবে বিদেশে (job fraud )। সুতরাং এমন হাতছানি উপেক্ষা করার বোকামি  উচিত কী! না, মোটেই উচিত নয়। চাকরিটা হতে পারে আমেরিকা কিংবা ইউরোপে। নাহলে দুবাই বা আবুধাবিতে। সুতরাং এজেন্টের সঙ্গে এখুনি যোগাযোগ করা দরকার।

ফোনে যোগাযোগ করার পর এজেন্ট আপনার ঠিকুজি কুষ্ঠি খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে জিজ্ঞেস করে জানাল, দেরি নয়। এখুনি সিভি পাঠিয়ে দিন। সিভি পাঠানোর পর তেরাত্তিরও কাটেনি। সাতসকালেই বেজে উঠল ফোন কিংবা হোয়াটস অ্যাপে মেসেজ। আমেরিকা কিংবা ইউরোপে চাকরি আছে। এখুনি তারা লোক চাইছে।

সেইসঙ্গে জানাল, রাতে বিদেশ থেকে ফোন করবে কোম্পানি। শুনে আপনি তো আনন্দে আত্মহারা। সেই ছোটবেলা থেকে স্বপ্ন দেখে আসছেন হয় আমেরিকা, নাহলে ইউরোপে চাকরি করবেন। এ তো আকাশের চাঁদ হাতে ছোঁয়ার মতো ব্যাপার। রাতে সত্যি সত্যিই ফোন এল ইউরোপের কোম্পানি থেকে। ফোনেই খুঁটিনাটি জিজ্ঞেস করে ইন্টারভিউ সেরে নিলেন সাহেব।

তারপরই এজেন্টের ফোন, কাল অফিসে আসুন। জরুরি কথা আছে। এজেন্টের অফিসে যাওয়ার পর এজেন্ট জানাল,অ্যাপয়েন্টমেন্ট রেডি। আপনার চাকরি হয়ে গেছে। তবে এজন্য এজেন্সিকে একটা টাকা দিতে হবে। সেইসঙ্গে ভিসার জন্য একটা অ্যামাউন্ট লাগবে। আর আপনি মোক্ষম চালে কুপোকাত। টাকা দিয়ে ইউরোপে যদি চাকরি হয়ে যায়, তাহলে টাকা দেওয়া যেতেই পারে।

কিন্তু এখানেই আপনার সর্বনাশের শুরু। পুরোটাই যে ধাপ্পাবাজি, সেটা বুঝতে পারলেন কিছুদিন পরে। দিনের পর দিন কোনও ফোন এল না। এজেন্টের অফিসে ফোন করেও রিং বেজে গেল। তারপর অফিসে গিয়ে পেলেন না এজেন্টকে। অফিসে তালা মেরে উধাও গুণধর এজেন্ট। দেখলেন আপনার মতো অনেকেই টাকা দিয়ে মাথায় হাত দিয়ে বসে পড়েছেন।

বিদেশে চাকরির জন্য এজেন্টকে টাকা দিতে মানা করে আসছে নোকরি ডট কম, গ্লোবাল কেরিয়ার ডট কমের মতো বড় বড় চাকরির খবর দেওয়া ওয়েবসাইটগুলো। কারণ, টাকা দিয়ে কখনও বিদেশে চাকরি হয় না। আর ইন্টারভিউ কখনও টেলিফোনে হয় না। হয় সরাসরি, না হয় স্কাইপে। আপনাকে যে চাকরির অফার দেওয়া হচ্ছে,সেটার অঙ্ক অস্বাভাবিক হলেই ধরে নিতে হবে সেটি প্রতারণার ছক।