Political Crisis in Maharashtra: ‘ক্ষমতা গেলে সংগ্রামের জন্য প্রস্তুত হন’, নেতাদের বার্তা পাওয়ারের

125
Political Crisis in Maharashtra: 'ক্ষমতা গেলে সংগ্রামের জন্য প্রস্তুত হন', নেতাদের বার্তা পাওয়ারের

মহানগর ডেস্ক: দিনদিন অস্বস্তি বাড়ছে মহারাষ্ট্রের (Maharashtra) রাজনৈতিক মহলে। পরিস্থিতি বিচার-বিবেচনা করতে এনসিপি (NCP) সুপ্রিমো শরদ পাওয়ারের (Sharad Pawar) বাসভবনে বৃহস্পতিবার বৈঠক বসেছিল জাতীয়তাবাদী কংগ্রেস পার্টির। যত দিন এগোচ্ছে তত বিধায়কদের সংখ্যা কমছে শিবসেনায় (Shivsena)। প্রসঙ্গে পাওয়ার নেতাদেরকে বলেছেন যে, ক্ষমতা যদি হারিয়ে যায় তবে আরও বড় রাজনৈতিক সংগ্রামের জন্য নিজেদের প্রস্তুত করুন।

এনসিপি সভাপতির কথায়, “আমরা যদি ক্ষমতা হারাই তবে, রাজনৈতিক সংগ্রামের জন্য প্রস্তুত থাকুন”। দলীয় সূত্রে, ‘উদ্ধব ঠাকরেকে পরিস্থিতি সামলানোর জন্য কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। যাই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে সঙ্গে থাকবে ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টি’। পাটিলের বক্তব্য, শরদ পাওয়ার বলেছেন তাঁদের দল মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীকে সমর্থন করতে যা করার দরকার তাই করবে। জিতেন্দ্র আওহাদ, হাসান মুশরিফ, জয়ন্ত পাটিল, দিলীপ ওয়ালসে এদিন এনসিপি সুপ্রিমোর বাসভবনে বৈঠকে বসেছিলেন।

আরও পড়ুন: মোহর মোহর চিৎকার! সামনে যেতেই চক্ষুচড়কগাছ প্রত্যক্ষদর্শীদের

সর্বভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমকে জয়ন্ত পাটিল বলেছেন, আমরা উদ্ধব ঠাকরের সঙ্গে রয়েছি। যতক্ষণ না বিধায়করা বেরিয়ে এসে বলছেন যে তারা একনাথ শিন্ডের সঙ্গে আছেন, ততক্ষণ কিছুই বলা যাবে না। একজন আসল শিব সৈনিক কখনও এমন বিদ্রোহ করতে পারেনা। যদি শিবসেনা থেকে যায়, তাহলে সরকার টিকে থাকবে। তাঁর বক্তব্য, শিন্ডে এবং কিছু বিরোধী বিধায়কদের সঙ্গে যোগাযোগ সংক্রান্ত বিষয়ে তাঁর কোনও ধারণা নেই। সরকার ক্ষমতা হারালে, এনসিপি বিরোধী দলে বসবে।

এএনআইকে পাটিল বলেছেন, সরকার থাকলে আমরা ক্ষমতায় থাকব, সরকার গেলে আমরা বিরোধী দলে বসব। তাঁর কথায়, আমি মনে করি না যে একটি রাজ্যে নতুন করে সরকার গঠন করতে, অন্য রাজ্যে গিয়ে নিজের শক্তি দেখাতে হবে।