দেশজুড়ে চালু বুস্টার ডোজ দেওয়া, স্বাস্থ্যকর্মীরা পাচ্ছেন এই প্রিকশন ডোজ

23

মহানগর ডেস্ক: আজ সোমবার, ১০ জানুয়ারি থেকে দেশজুড়ে চালু হল বুস্টার ডোজ। আর তার জন্যই কলকাতার বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালগুলোতে প্রথম সারির করোনার যোদ্ধা অর্থাৎ স্বাস্থ্যকর্মী, চিকিৎসক, সাফাই কর্মচারী থেকে শুরু করে ষাটর্ধ্ব এবং কোমর্বিডিটির সমস্যা রয়েছে এমন মানুষজনেদের দেওয়া হচ্ছে বুস্টার।

বুস্টার ডোজ দেওয়ার ক্ষেত্রে কেন্দ্রের তরফ থেকে নিয়ম করা হয়েছে, প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার ৯ মাস পর থেকে নেওয়া যাবে টিকার বুস্টার ডোজ। কোউইন অ্যাপে আগে থেকে রেজিস্টার করার তেমন কোনও নিয়ম কিংবা বাধ্যবাধকতা নেই।

তবে এক্ষেত্রে সাধারণ মানুষের মধ্যে প্রশ্ন জাগছে, বুস্টার এর ক্ষেত্রেও কি কোভ্যাক্সিন এবং কোভিশিল্ড – এর ভাগাভাগি রয়েছে? এক্ষেত্রে চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন হ্যাঁ। যিনি আগে কোভ্যাক্সিনের দুটি ডোজ নিয়েছিলেন। তিনি বুস্টারও পাবেন কোভ্যাক্সিনেরই। আবার যিনি কোভিশিল্ড পেয়েছিলেন, তিনি কোভিশিল্ডেরই বুস্টার ডোজ নেবেন।

দেশজুড়ে যখনই টিকাকরণ শুরু হয়, তখনই প্রথমে করোনার প্রথম সারির যোদ্ধাদের তার আওতায় আনা হয়। কারণ চিকিৎসকদের মধ্যেই রোগ আক্রান্তের পরিমাণ বেড়ে গেলে, দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ভেঙে পড়বে। সেক্ষেত্রে প্রথম ডোজের পর এবার বুস্টার ডোজের ক্ষেত্রেও স্বাস্থ্যকর্মীদের এবং ষাটোর্ধ্ব দেশের প্রবীণ নাগরিকদের আগে দেওয়া হবে।