বিধানসভা নির্বাচনের আগে বদলে গেল গোয়ার কো-ইন-চার্জ, গুরুদায়িত্ব সুস্মিতা-সৌরভের কাঁধে

53

মহানগর ডেস্ক: যত বিধানসভা নির্বাচনের দিন এগিয়ে আসছে, তত গোয়ার সাংগঠনিক ক্ষেত্রে বিশেষভাবে নজর বাড়াচ্ছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। জাতীয় রাজনীতিতে নিজের জায়গা দখল করতে তৎপর তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার গোয়া তৃণমূলের কো-ইন-চার্জ পদে রাজ্যসভার তৃণমূল সাংসদ সুস্মিতা দেব এবং আলিপুরদুয়ারের প্রাক্তন বিধায়ক সৌরভ চক্রবর্তীকে বসালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

যেই দায়িত্বভার এতদিন ধরে সামলাচ্ছিলেন নদীয়ার তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র। সেখানে এবার বহাল হয়েছেন সাংসদ সুস্মিতা দেব ও প্রাক্তন বিধায়ক সৌরভ চক্রবর্তী। মঙ্গলবারই গোয়ার পথে পাড়ি দিয়েছেন প্রাক্তন বিধায়ক। কলকাতা হয়ে এদিন গোয়ায় যাবেন তিনি। অন্যদিকে প্রথমে ত্রিপুরায় তৃণমূলের দায়িত্ব সামলানোর নেতৃত্বে ছিলেন সুস্মিতা দেব। কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার পর অসমের এই বাঙালি নেত্রীকে ত্রিপুরার দায়িত্বভার দেওয়া হয়েছিল। তাঁর কাজ ভালো হওয়াতে ফের আরও এক গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বভার দেওয়া হল তাঁকে। যদিও এই নিয়ে প্রশ্ন উঠছে রাজনৈতিক মহলে।

অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন, জাতীয় রাজনীতিতে দলের জায়গা পোক্ত করতে এই সিদ্ধান্ত নাকি মহুয়া মৈত্রতে আস্থা হারাচ্ছে দল? প্রসঙ্গত গোয়াতে নিজের দলকে শক্তিশালী করতে কংগ্রেসে ভাঙন ধরানোর থেকে শুরু করে, বিভিন্ন বিশিষ্ট ব্যক্তিদের দলে নিয়েছে তৃণমূল। গোয়ার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন কংগ্রেসের হেভিওয়েট প্রার্থী। তাঁকে দলে টেনে অলিম্পিক পদকজয়ী টেনিস খেলোয়াড় লিয়েন্ডার পেজ ও অভিনেতা নাফিসা আখতারদেরও দলে নিয়ে গোয়াবাসীর মনে জায়গা করার পরিকল্পনা করেছে তৃণমূল।

এইসবের মধ্যে গোয়ার কো- ইন-চার্জ পদে থাকা মহুয়া মৈত্রকে সরিয়ে ফেলার কাণ্ডে আঙ্গুল উঠছে। এর আগে নদীয়ার প্রশাসনিক বৈঠক চলাকালীন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে ‘ধমকানি’ শুনতে হয়েছিল তাঁকে। এরপর তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য কিছুটা নিজের ক্ষোভ দেখিয়েছিলেন মহুয়া মৈত্র। যে কারণে রাতারাতি গোয়ার কো-ইন-চার্জ বদল হওয়ায় শোরগোল রাজনৈতিক মহলে।