ভালোবাসার দিনে ভোট গোয়ায়, সবার নজর তৃণমূলের দিকে

8

নিজস্ব প্রতিনিধি: ফেব্রুয়ারিতেই হওয়ার কথা ছিল পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন। করোনা সংক্রমণ বাড়ছে। তাই রাজনীতির কারবারিরা ভাবছিলেন ভোট হয় কিনা! শেষমেশ ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণা করে দিল নির্বাচন কমিশন। ওই নির্ঘণ্ট অনুযায়ী, গোয়া বিধানসভার ভোট হবে ১৪ ফেব্রুয়ারি, ভালোবাসার দিনে।

আরব সাগরের তীরের এই ছোট্ট রাজ্যকেই পাখির চোখ করেছে তৃণমূল। একুশের বিধানসভা নির্বাচনে বিপুল জনাদেশ নিয়ে ক্ষমতায় আসে তৃণমূল। তার পরেই গোটা দেশে সংগঠন বিস্তারে উদ্যোগী হন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল। সেই মতো প্রথমে ত্রিপুরার দিকে নজর দেন তৃণমূলের সেকেন্ড ইন কমান্ড অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। ত্রিপুরা পুরভোটে প্রার্থী দেয় মমতার দল। ওই ভোটে একমাত্র আমবাসা ছাড়া অন্য কোথাও দাঁত ফোটাতে পারেনি তৃণমূল। আমবাসায় যিনি জয়ী হয়েছিলেন তিনিও বিজেপিতেই যোগ দেন।

মিশন ত্রিপুরা ব্যর্থ হলেও, গোয়া মিশন সফল করতে উদ্যোগী হয় তৃণমূল। বেশ কয়েক মাস আগে থেকে ঘন ঘন গোয়া যাতায়াত করতে শুরু করেন তৃণমূলের শীর্ষ স্থানীয় নেতারা। সুস্মিতা দেব এবং সৌরভ চক্রবর্তী ঘাঁটি গেড়ে বসে রয়েছেন সেখানে। দু দুবার গোয়া গিয়ে ফিরে এসেছেন তৃণমূল নেত্রী স্বয়ং। বাংলায় লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের আদলে গোয়ায় ক্ষমতায় এলে তৃণমূল গৃহলক্ষ্মী প্রকল্প চালুর আশ্বাস দেন। স্বাভাবিকভাবেই এবার দেশবাসীর নজর থাকবে গোয়ায় তৃণমূলের ফলের দিকে।

নির্বাচন কমিশনের ঘোষণা অনুযায়ী, ৪০ আসন বিশিষ্ট গোয়া বিধানসভা নির্বাচন হবে একটি মাত্র দফায়, ১৪ ফেব্রুয়ারি। ফল ঘোষণা হবে ১০ মার্চ।