অকারনে হাত কেঁপে যাচ্ছে! নার্ভের সমস্যা নয় তো? মুক্তি আছে এই ব্যায়ামে

108

মহানগর ডেস্ক : কোনও কাজ করার আগেই হাতটা হঠাৎ কেঁপে যাচ্ছে। কিংবা কখনো নিজের অজান্তেই আপনার হাত কেঁপে যাচ্ছে। আপাতদৃষ্টিতে দুশ্চিন্তা বা টেনশন বলে উড়িয়ে দিলেও ব্যাপারটা হতে পারে গুরুতর। কিছু ক্ষেত্রে স্নায়বিক সমস্যায় অকারনে হাত কাঁপে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে বয়স্কদের মধ্যে এই সমস্যা বেশি দেখা যায়। একে বলা হয় পারকিনসন্সের সমস্যা। তবে সবক্ষেত্রে ডাক্তারের কাছে না ছুটে সামান্য এই যোগাসনেই মিলতে পারে মুক্তি। দেখে নিন এক নজরে…

 

১) রাবার বল : যেকোনও স্টেশনারি বা ওষুধের দোকানের রাবার বল খুব সহজে পাওয়া যায়। অনেক ক্ষেত্রে এগুলোকে স্ট্রেস বলও বলা হয়। হাত কাঁপার সমস্যা দূর করতে এই বল কাজে লাগে। বলটিকে হাতের তালুর মধ্যে রেখে শক্তভাবে চেপে ধরুন। আবার কিছুক্ষণ পর ছেড়ে দিন। এইভাবে ১০ মিনিট বল সংকোচন এবং প্রসারণের ফলে স্নায়ু সংকুচিত হয়। যত শক্তভাবে বল চেপে রাখা সম্ভব তত দ্রুত মিলবে আরাম।

 

২) ডাম্বেল : যাঁরা যোগাসনের সঙ্গে যুক্ত তাঁদের সহজেই ডাম্বেল মিলবে হাতের কাছে। কিন্তু যাঁরা যুক্ত নন তাঁদের ক্ষেত্রেও সমস্যা নেই। অনলাইনে খুব সহজেই পেয়ে যাবেন ডাম্বেল। হালকা ওজনের ডাম্বেল হাতের তালুতে ধরে কনুই ভেঙে হালকা ভাবে হাত উপরে এবং নিচে নামান। যে সমস্ত রোগীরা পারকিনসন্সের সমস্যায় ভোগেন তাঁদের ক্ষেত্রে ভীষণভাবে উপকারী এই ব্যায়াম। তাছাড়া স্নায়ুর চাপ কমাতে,ক্লান্তি দূর করতে এই ব্যায়াম ভীষণ উপকারী।

 

৩) ফিঙ্গার ট্যাপ : ফিঙ্গার ট্যাপ বা আঙুলের নাড়াচাড়া স্নায়ু রোগ নিয়ন্ত্রণ করে। তবে সেক্ষেত্রে আঙুলকে কখনই উল্টোদিকে স্ট্রেচ করবেন না। সেক্ষেত্রে দেখা দিতে পারে অন্য বিপদ। অতি সাধারণ এই ব্যায়ামেই হাতের গতি নিয়ন্ত্রণের কাজ করে