আইপিএল দেখতে এসে বিএসএফ’এর হাতে আটক, পরে বাংলাদেশে হস্তান্তর

42

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: খেলা কোনও সীমানা, গন্ডি বা কোনও ভেদাভেদ মানে না। তাই তো সেই খেলার টানে সীমান্ত পারি। যদিও নিরাপত্তারক্ষীদের কারণে তার সেই ইচ্ছে পূরণ হয় নি। ইচ্ছে ছিল ভারতের মুম্বাইতে ‘ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ’ (IPL) ক্রিকেট খেলা দেখবে। আর সেই লক্ষ্যেই আন্তর্জাতিক সীমানা পার করেছিল বাংলাদেশি যুবক। এরপর অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের অভিযোগে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)-এর হাতে ধরাও পরে। যদিও মানবতা ও সদিচ্ছার ইঙ্গিত হিসাবে আটকৃত ওই যুবককে বাংলাদেশ সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিজিবি)’র কাছে হস্তান্তর করে বিএসএফ।

বিএসএফ সূত্রে খবর, গত ১৫ এপ্রিল উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বাগদা ব্লকের রনঘাটে অবস্থিত বাহিনীর ৬৮ নম্বর ব্যাটেলিয়নের সীমা চৌকি এলাকায় অবৈধভাবে ভারতীয় ভূখন্ডে প্রবেশের সময় একজন ব্যক্তিকে আটক করে। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা যায় মোহাম্মদ ইব্রাহিম নামে ৩১ বছর বয়সী ওই যুবকের বাড়ি বাংলাদেশের নারায়ণগঞ্জ জেলার পূর্ব চাঁদপুরে। তাঁর পিতার নাম মোহাম্মদ আব্দুল ব্যারাক। জিজ্ঞাসাবাদে আরও জানা যায়, ইব্রাহিম একজন ক্রিকেটপ্রেমী। আইপিএল ম্যাচ দেখতে মুম্বাই যাচ্ছিল। আর অবৈধভাবে আন্তর্জাতিক সীমান্ত পার হওয়ার জন্য আনিসুল নামের এক দালালকে ৫০০০ বাংলাদেশি টাকাও দেয় সে। কিন্তু মুম্বাইয়ে গিয়ে আইপিএল দেখা আর হয় নি। তার আগেই ভারতে প্রবেশের পরই বিএসএফ’এর হাতে আটক হয় ইব্রাহিম। যদিও মানবতা ও সদিচ্ছার কারণে গ্রেফতারকৃত ওই বাংলাদেশি যুবককে বিজিবি’এর কাছে হস্তান্তর করা হয়।

বিএসএফ’এর ৬৮ ব্যাটালিয়নের কমান্ডিং অফিসার যোগিন্দর আগরওয়াল জানান ‘ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে অনুপ্রবেশ ঠেকাতে বাহিনী কঠোর ব্যবস্থা নিচ্ছে এবং যার কারণে কিছু অসাধু লোক ধরাও পড়ছে। যদিও গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিদের অপরাধের গুরুত্ব বিবেচনা করে এবং উভয় দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর পারস্পরিক সহযোগিতা ও সদিচ্ছার কারণে তাদের মধ্যে কয়েকজনকে বিজিবি’র কাছে হস্তান্তর করা হয়।