Healthy Lifestyle: মন চাইলেই মিলন নয়, জেনে নিন সঙ্গমের প্রকৃত সময়

120

মহানগর ডেস্ক: যৌন মিলন (SEX) যে কোনও মানুষের শরীরে একটি সহজাত প্রবৃত্তির মধ্যে পড়ে। জন্মের পর থেকে চেহারা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে মানুষের শারীরিক এবং মানসিক চাহিদা বৃদ্ধি পায় (Healthy Lifestyle)। আর সেই চাহিদার তৃপ্তি যোগাতেই সঙ্গম করে থাকে দম্পতিরা। তবে কোন সময় যৌন মিলন করা উচিত? আর কোন সময়ে নয়, সে বিষয়ে আমরা অনেকেই সচেতন নই। এমন অনেক সময় আছে যে সময় সঙ্গমে লিপ্ত হলে, নারী – পুরুষ উভয়েরই হয়ে যেতে পারে বড়সড় ক্ষতি।

আরও পড়ুন: বন্যা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে, বিস্তীর্ণ এলাকা জলের তলায়, মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১০৭

মূলত পিরিয়ড চলাকালীন যদি মানসিক প্রস্তুতি না, থাকে তাহলে বলব যৌন মিলন করা উচিত নয়। কারণ মাসিক চলাকালীন সঙ্গমে লিপ্ত হলে চিকিৎসকরা বলেন, মহিলাদের মানসিক এবং পিরিয়ডজনিত পেটে ব্যথা কিংবা নানা রকম যন্ত্রণার হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। কিন্তু তার জন্য অবশ্যই মানসিক দিক থেকে প্রস্তুত থাকা অত্যন্ত প্রয়োজন।

দ্বিতীয়ত, শারীরিক দিক থেকে খুব টায়ার্ড হয়ে পড়লে জোর করে সঙ্গমে লিপ্ত হওয়ার প্রয়োজন নেই। কারণ শরীর যদি না চায়, তাহলে আপনি নিজেও বিষয়টির আনন্দ উপভোগ করতে পারবেন না। এমনকি আপনার পার্টনারও সন্তুষ্ট হবে না। ফলে যেখানে শরীরের এবং মনের স্বতঃস্ফূর্ততা থাকবে না, তাতে লিপ্ত না হওয়াই ভালো, এমনটাই বলেন মনস্তাত্ত্বিকরা।

তৃতীয়ত, সন্তান প্রসব করার পর মহিলাদের অনেক সাবধানতা অবলম্বন করে চলতে হয়। কারণ সেই সময়ে নারীদের শরীরে একটা টানা বেশ কিছু সময় ধরে পিরিয়ড চলতে থাকে। সেই সময়ে আপনার পুরুষ সঙ্গীর মন চাইতেই পারে সঙ্গমে লিপ্ত হতে। কিন্তু ওই সময়ে শরীরের গঠন প্রক্রিয়াটাই নতুনভাবে তৈরি হয়। ফলে ওই সময়ে যৌন সঙ্গমে লিপ্ত হলে, মহিলার শরীরে ক্যান্সার পর্যন্ত হতে পারে। তাই বলব, যতদিন সন্তান প্রসবের পরে মাসিক চলবে। সেই সময়টা চেষ্টা করবেন যতটা সম্ভব যৌন মিলন এড়িয়ে যাওয়া যায়।

চতুর্থত, আপনি যদি কখনও অতিরিক্ত নেশা করে থাকেন তাহলে সেই সময়ে অবশ্যই এড়িয়ে যাবেন যৌন মিলনকে। কারনা নেশার ঘোরে কখন কি হয়ে যায়, তার কোনও ঠিক থাকে না। যতটা সম্ভব সুস্থ মানসিকতার মিলন করার চেষ্টা করবেন। কারণ ওই সময়ে কোন অঘটন ঘটার সম্ভাবনা থাকে না। আর সেই সময় আপনার সঙ্গে যা যা হবে পুরোটাই আপনি মনে রাখতে পারবেন।