Vijay Hazare Trophy: ঘরোয়া ক্রিকেটে প্রথম খেতাব জিতে ইতিহাস, বিজয় হাজারের মুকুট হিমাচল প্রদেশের মাথায়

10
খেতাব জয়ের দুই নায়ক শুভম এবং অমিত।

মহানগর ডেস্ক: রুদ্ধশ্বাস ফাইনাল সাক্ষী থাকল স্বপ্ন ভাঙা-গড়ার। ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি নয়, ভারতের ঘরোয়া ক্রিকেটে ইতিহাসের নতুন অধ্যায় রচিত হল। অভিজ্ঞ দীনেশ কার্তিকের মঞ্চে ভারতীয় ক্রিকেট পেল তাঁরই উত্তরসূরি। তরুণ ও অখ্যাত শুভম আরোরা নামক নয়া নক্ষত্রের উত্থান ঘটল ভারতীয় ক্রিকেটে।

রবিবার জয়পুরের সোয়াই মানসিং স্টেডিয়ামে বিজয় হাজারে ট্রফির ফাইনালে তারকাখচিত তামিলনাড়ুর মুখোমুখি হয়েছিল হিমাচল প্রদেশ। দীনেশ কার্তিক-শাহরুখ খান-ওয়াশিংটন সুন্দর-বিজয় শঙ্করদের বিরুদ্ধে স্বাভাবিকভাবেই আন্ডারডগ হিসাবে নেমেছিল ঋষি ধাওয়ান অ্যান্ড কোং। ম্যাচের শুরুটা দেখে অবশ্য শেষ বোঝার উপায়ও ছিল না। যদিও প্রথমে ব্যাট করতে নেমে বাবা অপরাজিত (২), এন জগদিসান (৯), সাই কিশোর (১৮) এবং মুরুগান অশ্বিন (৭)-এর উইকেট দ্রুত হারিয়ে চাপে পড়ে যায় তামিলনাড়ু। তবে ঠান্ডা মাথায় খাদের কিনারা থেকে দলকে টেনে তোলেন কার্তিক। তাঁকে যোগ্য সঙ্গত দেন বাবা ইন্দ্রজিত। ১০৩ বলে ১১৬ রানের ইনিংস খেলেন ডিকে। ৭১ বল খেলে ইন্দ্রজিতের অবদান ৮০। এরপর শাহরুখ খান (২১ বলে ৪২) এবং অধিনায়ক বিজয় শঙ্করের (১৬ বলে ২২) ঝড়। তবুও ৪৯.৪ ওভারে অলআউট হয়ে যায় তামিল বাহিনী। তার আগে অবশ্য স্কোরবোর্ডে ৩১৪ রানের বিশাল স্কোর খাড়া করে তারা। হিমাচলের হয়ে ধাওয়ান তিনটি এবং পঙ্কজ জসওয়াল চারটি উইকেট নেন।

জবাবে কার্তিককে পালটা দেন হিমাচলের উইকেটরক্ষক শুভম। শত চেষ্টা করেও বাইশগজ থেকে তাঁকে এদিন সাজঘরের পথ দেখাতে পারেননি সন্দীপ ওয়ারিয়ার- সুন্দররা। অপরদিকে তিনটি উইকেট হারালেও অমিত কুমার জুটি বাধের শুভমের সঙ্গে। ৭৯ বলে ৭৪ রান করে আউট হন অমিত। এরপর ধাওয়ান মাত্র ২৩ বলে ৪২ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন। অন্যদিকে তখন ১৩১ বলের মোকাবিলা করে ১৩৬ রান করে ক্রিজে ছিলেন শুভম আরোরা। ৪ উইকেট হারিয়ে হিমাচল প্রদেশের স্কোর যখন ২৯৯, অর্থাৎ ১৫ বলে জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল মাত্র ১৬ রান, তখন খারাপ আলোর ম্যাচ বন্ধ করে দিতে বাধ্য হন আম্পায়াররা। ভিজেডি পদ্ধতিতে যোগ্য দল হিসাবেই ১১ রানে জিতে বিজয় হাজারে চ্যাম্পিয়ন হয় হিমাচল। দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটে এটাই হিমাচল প্রদেশের প্রথম খেতাব। স্বাভাবিক ভাবে ম্যাচের সেরা হন শুভম।