Prophet Row: নূপুর শর্মার সমর্থনে বিরাট মিছিল বেরোলো বিদেশে

346
Prophet Row: নূপুর শর্মার সমর্থনে বিরাট মিছিল বেরোলো বিদেশে

মহানগর ডেস্ক: পয়গম্বর বিতর্কের আঁচ এবার ছড়িয়ে পড়ল দেশের বাইরেও। ভারতের পড়শি রাষ্ট্র নেপালে প্রাক্তন বিজেপি নেত্রী নুপুর শর্মার সমর্থনে বিশাল মিছিল বের করেছিল সেই দেশের হিন্দুরা। আর সেই সমস্ত ভিডিও ক্লিপগুলো ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় আগুনের মত ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

” আমরা নূপুর শর্মাকে পূর্ণ সমর্থন করি” এইরূপ লেখা প্ল্যাকার্ড হাতে ” জয় শ্রী রাম ” স্লোগান তুলে এদিন মিছিল বের করেছিলেন নেপালের হিন্দুরা। টুইটার এবং অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে বেশ কিছু ভিডিও প্রকাশ পেয়েছে যাতে দেখা যাচ্ছে নেপালি পতাকা হাতে নূপুর শর্মার সমর্থনে প্ল্যাকার্ড হাতে বেরিয়েছিলেন একদল মানুষ। ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম ইউটিউবেও আরেকটি ভিডিও পোস্ট করা হয়েছে যাতে নূপুর শর্মা এবং নেপালি পুলিশের আধিকারিকদের সমর্থনে বিপুল সংখ্যক লোককে সমাবেশ করতে দেখা যায়।

 

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বারাণসীতে জ্ঞানবাপী মসজিদ বিতর্ক চলাকালীন একটি টেলিভিশন শোতে হজরত মহম্মদকে নিয়ে কুরুচিকর মন্তব্য করেছিলেন নূপুর শর্মা। যাকে কেন্দ্র করে উত্তরপ্রদেশের কানপুরে সংঘর্ষ বাধে দুই গোষ্ঠীর মধ্যে। যার পর বিজেপির মুখপাত্রকে দলের প্রাথমিক সদস্য পদ থেকে বরখাস্ত করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। কিন্তু তাতেও শান্ত করা যায়নি ইসলামিক দুনিয়াকে। তাঁর মন্তব্যের রেশ পৌঁছে গিয়েছে আরব পর্যন্ত। এটি একটি আন্তর্জাতিক ইস্যু হয়ে উঠেছে।

পরিস্থিতি সামাল দিতে বিজেপির পক্ষ থেকে বিবৃতি প্রকাশ করে জানানো হয়, “সব ধর্মকে সম্মান চোখে দেখে ভারতীয় জনতা পার্টি। কোনও ধর্ম বা ধর্মীয় ব্যক্তির প্রতি অসম্মানজনক মন্তব্যকে একদমই সায় দেয় না গেরুয়া শিবির। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করছে দল”। কিন্তু তাতেও থামেনি ক্ষোভের রেশ। আন্তর্জাতিক আঙ্গিনায় বিপদ বেড়েছে ভারত সরকারের।

মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে নিযুক্ত ভারতীয় রাষ্ট্রদূতদের তলব করা হয়েছে। তাঁরা জানিয়েছেন, “হজরত মহম্মদকে নিয়ে এই ধরণের মন্তব্য করা প্রান্তিক দলগুলির কাজ। কেন্দ্রীয় সরকার এইসব বিষয়কে কোনওভাবেই সমর্থন করে না”। অবশেষে এদিন এফআইআর দায়ের হয়েছে নূপুর শর্মা, নবীন জিন্দাল সহ আরও বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে।

সম্প্রতি নূপুর শর্মার সমর্থনে দাঁড়িয়েছেন ডাচ সংসদ সদস্য গির্ট উইল্ডার্স। নেদারল্যান্ডে ওয়াইল্ডার্স প্রায়ই ইসলামিক উগ্রবাদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়েছেন। এমনকি ওয়াইল্ডার্স নূপুর শর্মার প্রতি সমর্থন দেখানোর পরে একাধিক মৃত্যুর হুমকিও পেয়েছেন।

এই বিতর্কে নূপুর শর্মাকে প্রকাশ্যে সমর্থন করেছেন বেশ কয়েকজন হিন্দু ধর্মগুরুও। কাশীর ধর্ম পরিষদে হিন্দু সাধুরা স্পষ্টভাবে বলেছেন যে যারা নূপুর শর্মাকে হুমকি দিচ্ছে তাদের ধরা উচিত এবং শাস্তি দেওয়া উচিত।