হায়দরাবাদ-কাণ্ডের ছায়া বালুরঘাটে, যুবতীর ক্ষত-বিক্ষত আধপোড়া দেহ উদ্ধার!

8
kolkata news

Highlights

  • মর্মান্তিক ঘটনার সাক্ষী থাকল দক্ষিণ দিনাজপুরের কুমারগঞ্জ থানার সাফনগর এলাকা
  • এক যুবতীর আধপোড়া দেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য
  • যে ঘটনা মনে করিয়ে দিল হায়দরাবাদের নারকীয় ঘটনার কথা


নিজস্ব প্রতিনিধি, বালুরঘাট:
মর্মান্তিক ঘটনার সাক্ষী থাকল দক্ষিণ দিনাজপুরের কুমারগঞ্জ থানার সাফনগর এলাকা। যে ঘটনা মনে করিয়ে দিল হায়দরাবাদের নারকীয় ঘটনার কথা! জানা গিয়েছে, আজ সকালে সাফানগর ও অশোকগ্রামের মাঝে মাঠে কৃষিকাজ করতে গিয়ে কয়েকজন কৃষক দেখতে পান একটি আধপোড়া দেহ কয়েকটি কুকুর ছিড়ে খাচ্ছে! কৌতূহলবসত ঘটনাস্থলে পৌঁছে তারা দেখতে পান একটি মেয়ের আধপোড়া দেহ ফাঁকা মাঠের মাঝে কালভার্টের নীচে পড়ে রয়েছে এবং তার গলায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কাটার চিহ্ন ও একটি হাত কাটা। মৃতদেহটি দেখে আতকে ওঠেন তারা। ক্ষণিকের বিহ্বলতা কাটিয়ে তারা খবর দেন স্থানীয় কুমারগঞ্জ থানায়।

কুমারগঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পোড়া মৃতদেহটি উদ্ধার করে নিয়ে যায় ময়না তদন্তের জন্য। স্থানীয় সাফানগর গ্রামের বাসিন্দারা জানান, মৃতদেহটি দেখে সকলে চমকে উঠি। এ যেন তেলেঙ্গানার পশুচিকিৎসকে ধর্ষণের পর পুড়িয়ে মারার ঘটনাকে মনে পড়িয়ে দিল। উদ্ধার হওয়া মৃতদেহ দেখে তাদের অনুমান, ওই যুবতীকে পুড়িয়ে মারার আগে তাকে ধর্ষণ করা হয় এবং ধারালো অস্ত্র দিয়ে খুন করা হয়। সবশেষে প্রমাণ লোপাট করতে পেট্রল ঢেলে পুড়িয়ে দেওয়া হয়।

এই ধারণার স্বপক্ষে তারা বলেন, যে জায়গায় মৃতদেহটি উদ্ধার হয়েছে তা জনমানবশূন্য, ধুধু ফাঁকা মাঠ, লোকজনের চলাচল নেই বললেই চলে। কোনও মেয়ের সেখানে যাওয়ার প্রশ্নই নেই। দ্বিতীয়ত, মৃতদেহটি যেখানে উদ্ধার হয়েছে, তার চারপাশে চাপ চাপ রক্ত পড়ে ছিল এবং মেয়েটির গলায় ও হাতে কাটা চিহ্ন ছিল। তারা আরও জানান, ওই যুবতীর বয়স আঠারও থেকে কুড়ির মধ্যে হতে পারে। কুমারগঞ্জ থানা সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই যুবতীর পরিচয় এখনও জানা যায়নি। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।