‘দেশের সবচেয়ে শক্তিশালী মহিলা আমি’, সোশ্যাল মিডিয়ায় আবারও বিতর্কিত মন্তব্য কঙ্কনার

30

মহানগর ডেস্ক: বলিউডের বিতর্ক কুইন বলা হয় কঙ্গনা রানাওয়াতকে। সে দেশ হোক কিংবা সিনেমা জগৎ, বিতর্কিত যে কোনও বিষয় নিয়ে সর্বদা আগে তৈরি থাকেন কঙ্কনা। এবার সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেকে ‘দেশের সবথেকে শক্তিশালী মহিলা’ বলে দাবি করলেন অভিনেত্রী। তারপর আবারও তাঁকে ঘিরে তৈরি হয়েছে নতুন বিতর্ক।

ইনস্টাগ্রামের স্টোরিতে বৃহস্পতিবার অভিনেত্রী একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রকাশিত তাঁকে নিয়ে সংবাদের স্ক্রিনশট তুলে শেয়ার করেন। আর তার ওপরেই তিনি লেখেন, ‘হা হা হা, এই দেশের সবচেয়ে শক্তিশালী মহিলা আমি’। এর পাশে মাথায় মুকুট দেওয়া একটি ইমোজি শেয়ার করেন অভিনেত্রী। তবে তাঁকে নিয়ে প্রকাশিত ওই সংবাদটিতে কি লেখা ছিল তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন!

মূলত, সম্প্রতি শিখ সম্প্রদায়কে ‘খলিস্তানি জঙ্গি’ বলে বিতর্কিত মন্তব্য করেন কঙ্গনা। তারপরই বিভিন্ন জায়গায় তাঁর নামেই এফআইআর দায়ের করা হয় শিখ সম্প্রদায়ের তরফ থেকে। এবার অভিনেত্রীর সোশ্যাল মিডিয়ার পোস্ট সেনরশিপ করা হোক, এই আবেদন জানিয়ে একটি মামলা দায়ের হয়েছে সুপ্রিম কোর্টে। আর সেই খবর অভিনেত্রী জানতে পেরেই, নিজেকে দেশের সবচেয়ে শক্তিশালী মহিলা বলে দাবি করছেন। পাশাপাশি নিজেকে রানীও বলতে চেয়েছেন, সদ্য পদ্মভূষণ উপাধি পাওয়া এই অভিনেত্রী।

প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রী বিতর্কিত তিনটি কৃষি বিল প্রত্যাহারের কথা ঘোষণা করার পরই, আন্দোলনরত কৃষকদের জেহাদী বলে আক্রমণ করেন কঙ্গনা রানাওয়াত। সেই সময় তিনি মন্তব্য করেছিলেন, ‘খুবই দুঃখজনক বিষয়। লজ্জাজনক এবং অসমীচীন ঘটনা। সরকারের করা নিয়ম অমান্য করে রাস্তার লোকেরা যদি এবার আইন তৈরি করতে শুরু করেন, তাহলে তাঁরা তো জিহাদীর সমান। অভিনন্দন সেই সকল মানুষকে, যাঁরা এটা দীর্ঘদিন ধরে চাইছিলেন।’ আর তারপরই অভিনয় থেকে ঘিরে দানা বাঁধতে থাকে নতুন বিতর্ক।