‘একদিন মাত্র পল্লবীর ফ্ল্যাটে গিয়েছিলাম..’, চাপের মুখে পরিচারিকার উক্তি স্বীকার করলেন বান্ধবী ঐন্দ্রিলা!

322

মহানগর ডেস্ক: গরফার ফ্ল্যাটে টালিগঞ্জের টিভি অভিনেত্রী পল্লবী দের মৃত্যুকে ঘিরে দানা বেঁধেছে একাধিক রহস্য। একেকজনের একেক রকম তথ্য উঠে আসছে পুলিশের কাছে। এরই মধ্যে পল্লবীর পরিবারের অভিযোগ, প্রেমিক সাগ্নিকের সঙ্গে পল্লবীর অজান্তেই সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল অভিনেত্রীর ঘনিষ্ঠ বান্ধবী ঐন্দ্রিলার। যা নিয়ে প্রতিনিয়ত অশান্তি হত এই যুগলের মধ্যে। কিন্তু এই অভিযোগ একেবারে অস্বীকার করেন বান্ধবী। তিনি জানান, তিনি কোনও দিন অভিনেত্রীর গরফার ফ্ল্যাটে পা পর্যন্ত দেননি। এমন পরিস্থিতি উঠে আসে অভিনেত্রীর বাড়ির পরিচালিকার বয়ান। সেখানে পরিচালিকা জানান, পল্লবীর অনুপস্থিতিতেই ফ্ল্যাটে যেতেন ঐন্দ্রিলা। এদিন সংবাদমাধ্যমের কাছে স্পষ্টতই সেই অভিযোগ অস্বীকার করলেন, পল্লবীর হাওড়ার বান্ধবী ঐন্দ্রিলা।

টেলি অভিনেত্রী পল্লবীর ফ্ল্যাটের পরিচারিকার তোলা অভিযোগ এবার সরাসরি অস্বীকার করলেন বান্ধবী ঐন্দ্রিলা। এক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে একবারই তিনি পল্লবীর ফ্ল্যাটে গিয়েছিলেন বলে দাবি ঐন্দ্রিলার। পরের দিন সাগ্নিকের শরীর খারাপ থাকায় এবং পল্লবীর শুটিং থাকায়, পল্লবীর অনুরোধে দিনের বেলায় ৪-৫ ঘন্টা সাগ্নিককের দেখভাল করতে হয় বলে জানান ঐন্দ্রিলা। পরে একসঙ্গে পল্লবী ও ঐন্দ্রিলা মিলে সাগ্নিককে হাওড়ার ডাক্তারখানায় চিকিৎসার জন্যে নিয়ে আসা হয় বলেও জানান তিনি।

পাশাপাশি ঐন্দ্রিলার মা লক্ষ্মী মুখোপাধ্যায়ও সরাসরি এই অভিযোগ অস্বীকার করেন। তিনি জানান, মেয়ে একবারই মাত্র ওই ফ্ল্যাটে গিয়েছিল। তাও পল্লবীর অনুরোধে। আমার মেয়ে পল্লবীর সঙ্গে দেড় বছর মেশেনি। এমনকি ওদের মধ্যে কোনও যোগাযোগও ছিল না। পল্লবী নিজে থেকে আমার মেয়ের সঙ্গে আবার করে বন্ধুত্ব করেছিল। তাছাড়া ওই গরফার ফ্ল্যাটটা সাগ্নিক ও পল্লবী মিলে মাত্র কয়েকদিন আগেই নিয়েছিল। কী করে আমার মেয়ে সেই ফ্ল্যাটেই একাধিকবার যেতে পারে? বলে পাল্টা প্রশ্ন তোলেন পল্লবীর মা।