‘চাকরি না দিলে নবান্নের সামনে করা হবে গণ-আত্মহত্যা’, টেট উত্তীর্ণ হবু শিক্ষকদের হুমকি

40
Jalpaiguri
ভিন রাজ্যে গিয়ে পরিযায়ী শ্রমিকের কাজ করার হুমকি দিলেন টেট উত্তীর্ণ হবু শিক্ষকরা।

নিজস্ব প্রতিনিধি, জলপাইগুড়ি: বেশ কয়েক মাস ধরে চাকরির দাবিতে আন্দোলনে নেমেছেন টেট উত্তীর্ণরা। এক বছর আগে নবান্নের সভাগৃহ থেকে সাংবাদিক বৈঠক করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, অবিলম্বে উত্তীর্ণদের নিয়োগ করা হবে। সেই প্রতিশ্রুতি এক বছর হতে চললেও নিয়োগ হয়নি এখনও ২০১৪ সালে প্রাইমারি টেট কোয়ালিফাইড, ট্রেইন্ড নট ইনক্লুড ক্যান্ডিডেটদের। সেই কারনে সোমবার ২০১৪-র প্রাইমারি টেট কোয়ালিফাইড ট্রেইন্ড নট ইনক্লুড ক্যান্ডিডেট একতা মঞ্চর পক্ষ থেকে এক আন্দোলন কর্মসূচি করা হয়।

এই আন্দোলন কর্মসূচিতে অংশ নেন সমস্ত প্রার্থিরা। তাঁরা জানান, যদি এবার তাঁদের নিয়োগ না হয় তবে, তাঁরা বৃহত্তর আন্দোলন অর্থাৎ গনআত্মহত্যার পথ বেছে নেবেন। কারন বিগত ৭ বছর ধরে তারা অপমানিত ও লাঞ্ছিত হচ্ছেন। এদিন সাংবাদিক বৈঠক থেকে টেট উত্তীর্ণরা জানিয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা মত অবিলম্বে আমাদের নিয়োগপত্র না দেওয়া হলে আমরা ভিন রাজ্যে গিয়ে পরিযায়ী শ্রমিকের কাজ করব। নতুবা আমরা নবান্নের সামনে গিয়ে গণ-আত্মহত্যা করব। কারণ রাজ্যে চাকরি নেই, আর এছাড়া আমাদের সামনে বিকল্প আর কোনও পথ খোলা নেই।

এদিন হবু শিক্ষকরা নিয়োগের দাবিতে টাউন ক্লাবে জমায়েত করে ডিভিশনার কমিশনারের অফিস পর্যন্ত অভিযান করে স্মারকলিপি জমা দেওয়া হয়।সোমবার এই আন্দোলনের পথ বাছলেন জলপাইগুড়ি জেলার কয়েকশ টেট পাস করা প্রাথমিক শিক্ষকরা। এদিন বিক্ষোভকারীরা আরও অভিযোগ করেছেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গত বছর নভেম্বর মাসে নবান্ন থেকে ঘোষণা করেছিলেন চাকরি দেওয়া হবে। সেই ঘোষণা অনুযায়ী ১২ হাজার পদে নিয়োগ করা হলেও, এখনও ৮ হাজার পদে টেট উত্তীর্ণদের চাকরি দেওয়া হয়নি। তাঁদের চাকরি দিতে হবে।

একইসঙ্গে হবু শিক্ষকদের সংগঠনের উত্তরবঙ্গের সভাপতি অভিযোগ করেছেন, ‘আমাদের মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী হতে চলেছেন। আর তাঁর ঘোষণা মানছেন না তাঁরই ক্যাবিনেট মন্ত্রীরা। তাঁরাই ওনার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পথে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে। তার বিরুদ্ধেও আমরা প্রতিবাদ জানাচ্ছি। কারণ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘোষণা না মেনে আমাদের অন্ধকারে ঠেলে দিচ্ছেন তাঁর ক্যাবিনেট মন্ত্রীরা। আমাদের দাবি অবিলম্বে চাকরি দিতে হবে’।