কংগ্রেসে যোগদানের জল্পনার মাঝেই PK-এর প্রাক্তন সংস্থার সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর কেসিআরের

62

মহানগর ডেস্ক: আর কিছুদিনের মধ্যেই হাত শিবিরে যোগ দিচ্ছেন প্রশান্ত কিশোর! বিগত বেশ কয়েকদিন ধরেই শোনা যাচ্ছে কংগ্রেসে যোগ দিতে পারেন পিকে। এই জল্পনার মাঝেই এবার তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাওয়ের বাড়িতে দেখা গেল তাঁকে। হাত শিবিরের সঙ্গে দফায় দফায় একদিকে বৈঠক সারছেন ভোটকুশলী পিকে। এরমধ্যে আচমকাই তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কেসিআর-এর বাড়িতে দেখা গেল তাঁকে। নতুন করে শুরু হয় জল্পনা। জানা গিয়েছে, তাঁর প্রাক্তন সংস্থা I-PAC ২০২৩ বিধানসভা নির্বাচনে কেসিআরের হয়ে কাজ করবে।

এদিন কি কথা হয়েছে প্রশান্ত কিশোর ও চন্দ্রশেখর রাওয়ের মধ্যে? তা নিয়ে ইতিমধ্যেই নানা হিসেব-নিকেশ করে ফেলেছেন রাজনৈতিক নেতৃত্বরা। শনিবার সকালেই হায়দরাবাদে কেসিআর-এর বাসভবনে ছিলেন পিকে। সেখানে দিনভর কথা হয়েছে দুই ব্যক্তিত্বের। এমনকি এরপর সেখানেই থেকে যান তিনি। জাতীয় সংবাদ মাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে এমনটাই‌। বরাবরই কংগ্রেস শিবিরের অন্যতম বিরোধীদের তালিকায় নাম আসে কে চন্দ্রশেখর রাওয়ের।

এদিকে সেই দলের বিরোধী শিবিরের অন্যতম নেতৃত্বের সঙ্গে দেখা করেছেন প্রশান্ত কিশোর। যেখানে জানা যাচ্ছে, আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই তিনি যোগ দেবেন কংগ্রেস শিবিরে। আগামী বিধানসভা ও লোকসভা ভোটে কেসিআর-কে নতুন করে কি পরামর্শ দিচ্ছেন এই ভোটকুশলী? জল্পনার মাঝেই জানা গিয়েছে, প্রশান্ত কিশোরের প্রাক্তন সংস্থা আই প্যাক-এর সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করেছেন তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী। কেসিআর বলেছেন, “২০২৪-এ জাতীয় স্তরে বিকল্প তৈরি করতে কাজ করবেন তিনি। আর সেই কাজে তাঁকে সাহায্য করবেন তাঁর দীর্ঘদিনের বন্ধু”।

এমনিতে কংগ্রেসকে পুনরুজ্জীবিত করতে নানা ধরনের উপদেশ দিয়েছেন প্রশান্ত কিশোর। রবিবার সনিয়া গান্ধী দলের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। কথা হয়েছে পিকে’কে নিয়ে। এরমধ্যেই মনে করা হচ্ছে, কংগ্রেসের একটি শর্ত ভেঙে দিয়েছেন তিনি! আবার জানা গিয়েছে, তিনিই হাত শিবিরকে কেসিআরের সঙ্গে জোটের প্রস্তাব দিয়েছেন। কিন্তু মূল প্রতিদ্বন্দ্বীর সঙ্গে কি জোট বাঁধবে হাত শিবির? সেটা সবথেকে বড় প্রশ্ন।