জনসংখ্যার বৃদ্ধি করোনার চেয়েও ভয়ঙ্কর, আইনের ভ্যাকসিন চাইলেন গিরিরাজ

9

মহানগর ওয়েবডেস্ক: দেশের বাড়তে থাকা জনসংখ্যায় লাগাম টানতে কড়া আইনের দাবিতে ইতিমধ্যেই সরব হয়েছেন বহু মানুষ। যার মধ্যে অন্যতম বিহারে বিজেপি সংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গিরিরাজ সিং। তিনি ফের একবার বাড়তে থাকা জনসংখ্যায় লাগাম টানতে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে জানালেন আর্জি। তার দাবি করোনাভাইরাসের চেয়েও ভয়ঙ্কর বাড়তে থাকা জনসংখ্যা। অবিলম্বে প্রয়োজন আইনের ভ্যাকসিন।

শনিবার বেগুসারাইয়ে সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে গিরিরাজ বলেন, ‘করোনা ভাইরাসের কারণে আমরা সরাসরি প্রভাবিত। কিন্তু ভারতে প্রত্যহ যে জনবিস্ফোরণ ঘটে চলেছে তার জেরে প্রভাবিত হচ্ছে উন্নয়ন।’ তার দাবি, ‘করোনাভাইরাসের চেয়েও ভয়াবহ জনসংখ্যার এই বিপুল বৃদ্ধি। করোনাভাইরাস এর জন্য ভ্যাকসিন আবিষ্কারের পথে। একইভাবে দেশের এই জনবিস্ফোরণ রুখতে আইনরুপি ভ্যাকসিনের আশু প্রয়োজন।’

চিনের উদাহরণ টেনে এদিন এর ব্যাখ্যাও দিয়েছেন গিরিরাজ সিং। তার কথায়, ১৯৭৮ সালে চিনের জিডিপি ভারতের চেয়েও নীচে ছিল। এরপর ১৯৭৯ সালে জনসংখ্যা রুখতে নয়া আইন লাগু করে চীন প্রশাসন। আজ ভারতে যেখানে এক মিনিটে ৩৩ শিশু জন্ম নিচ্ছে, সেখানে চিনে ১ মিনিটে জন্ম নিচ্ছে মাত্র ১০ জন। ফোনে বিষয়টিকে ধর্মের নজর থেকে দেখা উচিত নয় বরং দেশের উন্নয়নের জন্য জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণটা একান্ত আবশ্যক। প্রসঙ্গতের আগেও একাধিকবার দেশের জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের দাবিতে সরব হয়েছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গিরিরাজ সিং। শনিবার ফের এ বিষয়ে আইন আনার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানালেন গিরিরাজ।