Home National আবগারি দুর্নীতিকাণ্ডে অভিযুক্ত আপ, শীর্ষ আদালতে জানাল ইডি

আবগারি দুর্নীতিকাণ্ডে অভিযুক্ত আপ, শীর্ষ আদালতে জানাল ইডি

by Mahanagar Desk
50 views

মহানগর ডেস্ক: দেশের প্রথম একটি স্বীকৃত রাজনৈতিক দল হিসাবে “আম আদমি পার্টি” বা “আপ”-এর নাম দিল্লির আবগারি দুর্নীতি সংক্রান্ত বেআইনি আর্থিক লেনদেনের মামলায় “অভিযুক্ত” হিসাবে দেখাতে চলেছে এনফের্সমেন্ট ডাইরেক্টরেট বা ইডি।  “আম আদমি পার্টি” বা আপ -এর নাম চার্জশিটে রাখা হবে বলে শুক্রবার তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট বা ইডি-র তরফে সুপ্রিম কোর্টকে জানানো হয়েছে। ইডি-র এই ঘোষণার পর আপই হচ্ছে দেশের মধ্যে প্রথম কোনও স্বীকৃত রাজনৈতিক দল যারা দুর্নীতির মামলায় “অভিযুক্ত” হিসেবে জাতীয় তদন্তকারী সংস্থার তদন্তে এলো।

আবগারি দুর্নীতির মামলায় দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীওয়াল, প্রাক্তন উপমুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসৌদিয়া-সহ আপের শীর্ষ নেতৃত্বের অনেককেই যুক্ত করেছে ইডি। এ বার আবগারি দুর্নীতির টাকা দলের কাজে খরচ করার অভিযোগ এনে সেই ঘটনায় আপকেও যুক্ত করল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা ইডি।

শুক্রবার শীর্ষ আদালতে অরবিন্দ কেজরীওয়ালের গ্রেফতারি সংক্রান্ত মামলার শুনানিতে ইডির আইনজীবী, অতিরিক্ত সলিসিটর জেনারেল এসভি রাজু জানান, বিশেষ আদালতে বিচারাধীন আবগারি দুর্নীতির মামলায় “অভিযুক্ত” হিসাবে কেজরীর তৈরি দলের নামও উল্লিখিত হয়েছে। তিনি বলেন, ‘‘ওই মামলায় একটি অতিরিক্ত চার্জশিট জুড়ে দিয়ে আপকে দুর্নীতিতে অভিযুক্ত করা হবে।’’

এই মুহূর্তে ভোটের প্রচারের জন্য সুপ্রিম কোর্ট অরবিন্দ কেজরীওয়ালকে অন্তর্বর্তী জামিন দেওয়ার পর ইডির তরফে এই পদক্ষেপ করার বিষয়টি জানানো হয়েছে। প্রসঙ্গত, এর আগে দিল্লির আবগারি দুর্নীতি মামলায় বেআইনি আর্থিক লেনদেনের মামলার শুনানিতে আপকে একটা “কোম্পানি”-র সঙ্গে তুলনা করেছিল ইডি। শুধু তা-ই নয়, কেজরীওয়ালকে সেই “কোম্পানি”-র ডিরেক্টর বলেও উল্লেখ করেছিল কেন্দ্রীয় সংস্থাটি। তাদের যুক্তির ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে ইডি বেআইনি ভাবে অর্থ লেনদেন বা পিএমএলএ আইনের ৭০ নম্বর ধারার কথা উল্লেখ করেছিল।
কোনও কোম্পানির ডিরেক্টর, ম্যানেজার, সেক্রেটারি বা অন্য কোনও উচ্চপদস্থ কর্তা যদি কোনও ভাবে আর্থিক তছরুপের সঙ্গে জড়িত থাকেন, তবে পিএমএলএ আইনের ৭০ নম্বর ধারা লঙ্ঘিত হয়। গত ২১ মার্চ দিল্লির আবগারি দুর্নীতি মামলায় ইডির হাতে গ্রেফতার হয়েছিলেন অরবিন্দ  কেজরীওয়াল। তাঁর গ্রেফতারিকে “বেআইনি” বলে দাবি করে প্রথমে দিল্লি হাই কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন অরবিন্দ কেজরীওয়াল স্বয়ং। কিন্তু দিল্লি হাই কোর্টের বিচারপতি স্বর্ণকান্তা শর্মা চলতি মাসের গোড়ায় সেই আবেদন খারিজ করে দেওয়ায় শীর্ষ আদালতের শরণাপন্ন হয়েছেন আপ প্রধান। সেই মামলারই শুনানি ছিল শুক্রবার। ইডির যুক্তি শোনার পরে রায় ঘোষণা স্থগিত রেখেছে সুপ্রিম কোর্ট। পাশাপাশি, অন্তর্বর্তী জামিনে মুক্ত কেজরীকে স্থায়ী জামিনের জন্য নিম্ন আদালতে আবেদনেরও অনুমতি দিয়েছে।

You may also like

Mahanagar bengali news

Copyright (C) Mahanagar24X7 2024 All Rights Reserved