Home National উৎসবের মরসুমে এক্সপ্রেস ট্রেনগুলিতে কমছে সাধারণ, স্লিপার কোচের সংখ্যা, কী বলছে রেল?

উৎসবের মরসুমে এক্সপ্রেস ট্রেনগুলিতে কমছে সাধারণ, স্লিপার কোচের সংখ্যা, কী বলছে রেল?

by Mahanagar Desk
2 views

মহানগর ডেস্ক: ছট পূজার সময়ে সাধারণত বিহার এবং উত্তর প্রদেশগামী সমস্ত ট্রেনে যাত্রীদের অতিরিক্ত ভিড় জমে। সাধারণ মানুষরা এই সময় ট্রেনের বগিতে রীতিমতো লড়াই করে যাত্রা করেন। অনেকেই, ছট পুজোর আগে তাদের গন্তব্যে পৌঁছানোর জন্যে মরিয়া হয়ে ট্রেনের টয়লেটে জায়গা নেয়। টানা ১২ ঘন্টারও বেশি সময় ধরে সঙ্কুচিত অবস্থায় ভ্রমণ করে। জনাকীর্ণ স্টেশন এবং যাত্রীদের দুর্ভোগের এই চিত্রগুলির মধ্যে, সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভাইরাল ছবি দাবি করল যে, ভারতীয় রেলওয়ে বছরের পর বছর ধরে আরও রাজস্ব আয় করতে উত্‍সব মরসুমে পরিচালিত বিশেষ ট্রেনগুলিতে সাধারণ এবং স্লিপার কোচের সংখ্যা কমিয়ে দিয়েছে। আগে একটি স্ট্যান্ডার্ড ২২-কোচের ট্রেনে চারটি সাধারণ কোচ থাকত, যা কমিয়ে দুটি করা হয়েছে এবং স্লিপার কোচ, যা সাতটি ছিল তা কমিয়ে দুটি করা হয়েছে। বিশেষত কোচের সংখ্যা হ্রাস করা হয়েছে বিহার এবং উত্তর প্রদেশগামী ট্রেনগুলিতে।

সেই কারণে অতিরিক্ত ভিড় জমছে। ইন্ডিয়া টুডে একটি নথিতে দেখিয়েছে যে, একটি ট্রেন মোট ২২ টি কোচ নিয়ে গঠিত। একটি স্ট্যান্ডার্ড ট্রেনে ৬-৭টি স্লিপার কোচ এবং চারটি জেনারেল কোচ থাকে। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ার ভাইরাল সেই ছবি দাবি করছে যে, 3AC কোচের সংখ্যা ছয়টি, এবং ১০ টি নয়। 2AC কম্পার্টমেন্টের দুটি কোচ এবং 1AC ক্যাটাগরির একটি কোচ রয়েছে। সাধারণ কোচ থাকবে চারটি, আর স্লিপার কোচ, যা নন-এসি, ৬-৭টি কোচ রয়েছে উৎসবমুখর ট্রেনে। ২০২৩ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত মোট ট্রেন ভ্রমণের পরিকল্পনা করা হয়েছে ৬৭৫৪টি। এটি ২০২২-এ গত বছরের বিশেষ ট্রেনের ট্রিপের চেয়ে ২.৫ গুণ বেশি – ২৬১৪ (অক্টোবর 1-31 ডিসেম্বর)। এই বছর এখনও পর্যন্ত, ভারতীয় রেল দিওয়ালি এবং ছট পূজার জন্য ২৪৪৩ টি বিশেষ ট্রেন চালিয়েছে।এ বছর, উৎসবের মরসুমের শুরু থেকে ৩৬ লাখ মানুষ ট্রেনে ভ্রমণ করেছেন এবং সংখ্যাটি গত বছরের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ। একটি সাধারণ কোচের আসন ধারণক্ষমতা, গড়ে ১০০ জন যাত্রী, যেখানে নন-এসি স্লিপার কোচের পাশাপাশি 3-টিয়ার এসি কোচের প্রতিটি তে ৭২ জন যাত্রীর ধারণক্ষমতা রয়েছে।

2-টায়ার এসি একটি কোচে (বগি) ৪৮ জন যাত্রী বসতে পারে।যাত্রী প্রবাহের বর্তমান হারে, সাধারণ কোচে সর্বোচ্চ ১৪ ​​লাখ এবং স্লিপার কোচে ১৭ লাখ যাত্রী বহন করে। যেখানে মাত্র ৩.৪ লক্ষ মানুষ 3AC তে ভ্রমণ করছেন, ১.৪ লক্ষ যাত্রী 2AC তে যাতায়াত করছেন। এই বছর, ৩৭২ কোটি যাত্রী স্লিপার, নন-এসি এবং সাধারণ কোচে ভ্রমণ করেছেন – যা গত বছরের তুলনায় ৪৮ কোটি বেশি।

 

 

You may also like

Mahanagar bengali news

Copyright (C) Mahanagar24X7 2024 All Rights Reserved