Home Kolkata “হাতজোড় করে বলছি, সিএএ নিয়ে রাজনীতি করবেন না”, সিএএ নিয়ে মমতাকে বললেন অমিত শাহ

“হাতজোড় করে বলছি, সিএএ নিয়ে রাজনীতি করবেন না”, সিএএ নিয়ে মমতাকে বললেন অমিত শাহ

by Mahanagar Desk
26 views
মহানগর ডেস্ক : “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে হাতজোড় করে বলছি, দায়া করে সিএএ নিয়ে রাজনীতি করবেন না। সিএএ নাগরিকত্ব কাড়ার নয় দেওয়ার আইন। সিএএতে একটা এমন ধারা দেখান যেখানে নাগটিকত্ব কেড়ে নেওয়ার কথা উল্লেখ আছে? সিএএ সংবিধান সম্মত। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অনুপ্রবেশ এবং শরনার্থীর পার্থক্য বোঝেন না। ভোটের আগে বিরোধীতা করছেন, ভোটব্যাঙ্কের রাজনীতি করছেন। হিন্দু-মুসলমানের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি চেষ্টা করছেন মমতা। ভোটের পর সব রাজ্য সিএএ মানবে। সিএএ সাংবিধানিক। এর সঙ্গে এনআরসির সম্পর্ক নেই। ডিটেনশন ক্যাম্পের প্রশ্ন আসছে কেন”?
সংবাদ সংস্থা এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেন, “পাকিস্তান, আফগানিস্তান, বাংলাদেশ থেকে ধমীয় উৎপীড়নের ফলে যে সব হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, জৈন, খ্রীষ্টান, পার্শি সম্প্রদায়ে যারা ভারতে এসেছেন তাদের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। যারা ভারতীয় মুসলমান তারাতো ভারতের নাগরিক আছেন। এই তিনটি দেশতো মুসনমান দেশ। তাদের সংবিধানে সেটা লেখা আছে। তাহলে সিএএ কেন ১৯৪৭ এর ১৫ অগস্ট থেকে ২০১৪-র ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত এই তিন দেশ থেকে ধর্মীয় উৎপীড়নের জন্য ভারতে আসা হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, জৈন, খ্রীষ্টান, পার্শিদের সঙ্গে মুসলমানদের নাগরিকত্ব দেবে? মুসলমানরা কি এই তিন দেশ থেকে ধর্মীয় উৎপীড়নের ফলে বিতারিত হয়ে ভারতে এসেছে?”
অমিত শাহ এদিন স্পষ্ট বলেন, “সংবিধান অনুসারে সংসদে পাস হওয়া বিল আইনে পরিণত হলে সেটা সব রাজ্য মানতে বাধ্য।”
প্রসঙ্গত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, এম কে স্ট্যালিন, পিনারাই বিজয়ন এই তিন মুখ্যমন্ত্রী সিএএ তাঁদের রাজ্যে কার্যকর হতে না দেওয়া প্রসঙ্গে এই মন্তব্য করেন। অমিত শাহ বলেন, “কোনও অবস্থাতেই সিএএ প্রত্যাহারের কোনও প্রশ্ন নেই। এনডিএ সরকার আবার ক্ষমতায় আসবে। সিএএ সব রাজ্যই ভোটের পর কার্যকর করবে। এখন শুধুমাত্র ভোটের জন্য সিএএ-র বিরোধীতা করছেন। এটা সংকীর্ণ ভোটের রাজনীতি হচ্ছে।” অমিত শাহ মমতাকে আক্রমণ করে বলেন, “যদি আপনি (পড়ুন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ) জাতীয় নিরাপত্তার বিষয় নিয়ে এই ধরনের রাজনীতি করেন, তোষণের রাজনীতি করতে গিয়ে অনুপ্রবেশ চলতে দেন, তা হলে মানুষ আপনার সঙ্গে থাকবে না। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানেন না, কাকে শরণার্থী আর কাকে অনুপ্রবেশকারী বলে। হিন্দুদের সঙ্গে অবিচার করবেন না।”

You may also like

Mahanagar bengali news

Copyright (C) Mahanagar24X7 2024 All Rights Reserved